অন্তঃসত্ত্বা নারীকে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণ, গ্রেফতার ৩

প্রকাশিত: ৭:২৩ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২২, ২০২০ | আপডেট: ৭:২৩:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২২, ২০২০
প্রতীকী ছবি

নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলায় তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে (২০) ধর্ষণ করে ভিডিওচিত্র ধারণের অভিযোগে তিন সহযোগী কিশোর গ্যাং সদস্যকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

গৃহবধূকে ধর্ষণের ঘটনার ১১ দিন পর মঙ্গলবার রাতে ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে মামলা করলে বুধবার পূর্ব ছাতারপাইয়া গ্রাম থেকে তিন জনকে আটক করে সেনবাগ থানা পুলিশ। পরে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আটকরা হলো- একই ইউনিয়নের পূর্ব ছাতারপাইয়া এলাকার আব্দুল কাইয়ুমের ছেলে যোবায়ের হোসেন শুভ (১৯), ছাতারপাইয়া বদর বাড়ির আলমগীর হোসেনের ছেলে মাইনুল হাসান (১৯) ও আব্দুল হকের ছেলে আরমান হোসেন রকি (২০)।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ৯ অক্টোবর) রাতে চাচাতো দেবর পারভেজ ঘরে ঢুকে ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ করে। এ সময় শুভ, হাসান ও রকিসহ ৮-১০ জন জানালা দিয়ে ভিডিও করে। পারভেজ ধর্ষণ করে চলে যাওয়ার পর শুভ, হাসান ও রকিসহ অন্যরা ধর্ষণের ভিডিও দেখিয়ে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এতে সে নারী রাজি না হলে ইন্টারনেটে ভিডিও ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে ত্রিশ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে তারা।

সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল বাতেন মৃধা বলেন, মঙ্গলবার রাতে ওই নারী বাদী হয়ে ৮ জনের নাম উল্লেখ করে ৫-৬ জন অজ্ঞাতনামাকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। এই ঘটনায় তিন জনকে আটক করা হয়েছে। মূল আসামি পারভেজসহ বাকিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।