অামার প‌রিবার অামার বোন ও ছে‌লে-মে‌য়ে সবারই তদন্ত হ‌য়ে‌ছে : প্রধানমন্ত্রী

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:১৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৮ | আপডেট: ৬:১৮:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৮
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফাইল ছবি

টিবিটি রাজনীতিঃপ্রধানমন্ত্রী শেখ হা‌সিনা ব‌লে‌ছেন, এর অা‌গে যখন ইমার‌জেন্সি ঘোষণা করা হ‌লো, অামা‌কে এবং খা‌লেদা জিয়া‌কে গ্রেফতার করা হ‌লো। অামার বিরু‌দ্ধে তো খা‌লেদা জিয়া প্রায় এক ডজন মামলা দি‌য়ে‌ছিল।

অাজ যেসব জি‌নিস নি‌য়ে অামরা গর্ব ক‌রি সেই ন‌ভো‌থি‌য়েটার, সেনাবা‌হিনী, বিমানবা‌হিনী ও নৌবাহিনীর জন্য অাধু‌নিক যন্ত্রপা‌তি, মিগ, উ‌ড়োজাহাজসহ যা যা ক্রয় ক‌রে‌ছি সব কার‌ণে মামলা হ‌য়ে‌ছে অামার ওপর।

বৃহস্পতিবার (৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় গণভবনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভার সূচনা বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী ব‌লেন, অাবার তত্ত্বাবধায়ক সরকার যখন ক্ষমতায় এলো তখন অামার ওপর অা‌রও পাঁচটি মামলা দিল। প্র‌তি‌টি মামলাই তারা ইনকুয়া‌রি ক‌রে‌ছে। এমনকি পদ্মা সেতু নি‌য়ে অামা‌দের ওপর দোষ দি‌তে যে‌য়ে অা‌মে‌রিকান গো‌য়েন্দা সংস্থাও তদন্ত ক‌রে‌ছে।

এছাড়া ওয়ার্ল্ড ব্যাংক তদন্ত ক‌রে‌ছে। অামার প‌রিবার অামার বোন ও ছে‌লে-মে‌য়ে সবারই তদন্ত হ‌য়ে‌ছে। অ‌নেক খোঁচাখু‌ঁচি হ‌য়ে‌ছে। ত‌বে এটা কর‌তে গি‌য়ে প্রমাণ বের হ‌য়ে এ‌সে‌ছে যে খা‌লেদা জিয়া ও তার ছে‌লেরা যে বি‌ভিন্ন কোম্পানির কাছ থে‌কে ঘুষ খে‌য়ে‌ছে। তারা‌ যে বি‌দে‌শে টাকা পা‌ঠি‌য়ে‌ছে সেগু‌লো ধরা প‌ড়ে‌ছে।

শেখ হাসিনা ব‌লেন, সেই সময় যে সরকার ক্ষমতায় ‌ছিল তারা কিন্তু বেগম খা‌লেদা জিয়ার প্রিয়ভাজন ছিল। তখন রাষ্ট্রপ‌তি ইয়াজউ‌দ্দিন ছি‌লেন খা‌লেদা জিয়ার দ‌লের লোক। তখনকার প্রধান উপ‌দেষ্টা ফখরু‌দ্দিন সা‌হেব‌কে ওয়ার্ল্ড ব্যাংক থে‌কে এনে তা‌কে বাংলা‌দেশ ব্যাং‌কের গভর্নর খা‌লেদা জিয়াই ক‌রে‌ছিল। তি‌নি তার খুবই অাস্থাভাজন ছি‌লেন।

সেনাবা‌হিনী থে‌কে নয়জনকে ডিঙ্গি‌য়ে জেনা‌রেল মঈন‌কে সেনাপ্রধান খা‌লেদা জিয়াই ক‌রে‌ছিল। এবং সেই অাম‌লেই তার বিরু‌দ্ধে মামলা। ওই মামলাগু‌লো চল‌ছিল প্রায় ১০ বছর। মামলা চলার পর তার ম‌ধ্যে রায় হ‌য়ে‌ছে। একটা মামলায় সে সাজাপ্রাপ্ত হ‌য়ে‌ছে, কোর্ট রায় দি‌য়ে‌ছে ব‌লেই সে কিন্তু কারাগা‌রে। অা‌রেক‌টি মামলাও তার চল‌ছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তার মামলা কর‌তে গি‌য়ে যে সমস্যা হ‌চ্ছে যে কো‌র্টের একটা সময় বাঁধা থা‌কে। কিন্তু যেকোনো সু‌তোয় হোক খা‌লেদা জিয়া কোর্টে যায় না। খা‌লেদা জিয়া‌তো কোর্টে যায়ই না অাবার তার অাইনজীবীরাও সময় নেয়।

এখা‌নে অামার একটা প্রশ্ন যে তি‌নি য‌দি নি‌র্দোষ হবেন তাহ‌লে মামলা মোকা‌বেলা কর‌তে ভয় কীসের? অার তা‌দের যারা অাইনজীবী তারা কেন কো‌র্টে যা‌বে না। ই‌তোম‌ধ্যে বল‌লো যে খা‌লেদা জিয়ার নিরাপত্তার অভাব, তার শা‌রীরিক অসুস্থতা, উ‌নি বেশি নড়‌তেচড়তে পার‌ছেন না। তান এমন অবস্থার কথা চিন্তা ক‌রেই জেলগে‌টে কোর্ট বসা‌নো হ‌য়েছে।

তিনি বলেন, অামরা ১০ বছর রাষ্ট্র প‌রিচালনা করে‌ছি। অান্ত‌রিকতা ও নিষ্ঠার সা‌থে দে‌শের উন্নয়‌নে কাজ ক‌রে‌ছি। দেশের মানু‌ষের কল্যা‌ণে কাজ ক‌রে‌ছি। দে‌শের মানুষ উন্নয়ন পে‌য়ে‌ছে, সুফল পে‌য়ে‌ছে ব‌লে আমাদের ওপর তারা অাস্থা ও বিশ্বাস স্থাপন ক‌রে‌ছে।