আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমি দখলের চেষ্টা, বাদীকে হত্যার হুমকি

প্রকাশিত: ৯:৫৫ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৯, ২০১৯ | আপডেট: ৯:৫৫:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৯, ২০১৯
বরিশাল

প্রিন্স তালুকদার, বাবুগঞ্জ (বরিশাল) প্রতিনিধি: বরিশালের বাবুগঞ্জে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার চাঁদপাশা ইউনিয়নের গাজীপুর এলাকায় এই ঘটনা ঘটনায় লিপ্ত রয়েছে একটি কুচক্রী মহল।

জানা গেছে, উপজেলার চাঁদপাশা ইউনিয়নের গাজীপুর এলাকার কাঞ্চন আলী মৃধার ছেলে সহিদুল ইসলাম মৃধা (সহিদ মৃধা) ৭২নং গাজীপুর মৌজার এস.এ ৬৮৬ নং খতিয়ানের ১৩৮৩, ১৩৮৫, ১৪১২, ১৪১৪, ১৪৫৫, ১৪৫৬, ১৪৫৯, ১৫০৩ ও ১৫১৯ দাগের ৭৮ শতাংশ জায়গার মালিক। উপজেলার চাঁদপাশা ইউনিয়নের গাজীপুর এলাকার কাঞ্চন আলী মৃধার ছেলে সহিদুল ইসলাম মৃধা (সহিদ মৃধা) নিজ নামীয় জায়গা আবাদ করতে গেলে একই এলাকার আবদুল বারেক মৃধার ছেলে আনছার আলী মৃধা ও আবদুস ছত্তার মৃধার ছেলে ফারুক হোসেন মৃধাসহ ৭/৮ জন জমিতে প্রবেশে বাধা দেয়।

উল্লেখিত দাগগুলোর জমির উপর বরিশালের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত ১৪৪ ধারা জারি করেন। মোকদ্দমা নম্বর ০৭/২০১৮ (এয়ারপোর্ট)। আদালত বিরোধীয় নালিশী ভূমিতে বর্ণিত মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত উভয় পক্ষকে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য উক্ত জায়গায় প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা প্রদান করেন।

কিন্তু উপজেলার চাঁদপাশা ইউনিয়নের গাজীপুর এলাকার আবদুল বারেক মৃধার ছেলে আনছার আলী মৃধা ও আবদুস ছত্তার মৃধার ছেলে ফারুক হোসেন মৃধাসহ ৭/৮ জন প্রায়ই দলবল বেধে, দেশীয় অস্ত্র, লাঠিসোটা ও হালের মেশিন নিয়ে বিরোধীয় জমি চাষাবাদ করতে যায়। উপজেলার চাঁদপাশা ইউনিয়নের গাজীপুর এলাকার কাঞ্চন আলী মৃধার ছেলে সহিদুল ইসলাম মৃধা (সহিদ মৃধা) দখলকাজে বাধা দিলে তাকে বিভিন্নভাবে হত্যা, বাড়ীঘর পুড়িয়ে দেয়া, মাদকসামগ্রী দিয়ে পুলিশে ধরিয়ে দেয়ার হুমকি দিচ্ছে।

জমির মালিক সহিদুল ইসলাম মৃধা (সহিদ মৃধা) বলেন, মামলার ঘটনায় আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে দেখে নেবে ও সন্ত্রাসী দিয়ে হয়রানী করবে বলে হুমকি দিচ্ছে। তারা যে কোন সময় আমার উপর হামলা ও নির্যাতন করতে পারে বলে আশংকা করছি। ১৪৪ ধারা ভাঙ্গার চেষ্টা ও হুমকি প্রদানের বিষয়টি আমি থানা পুলিশকে মৌখিকভাবে অবহিত করেছি। চরম উদ্দিন্ন আর উৎকন্ঠায় দিনযাপন করছি, জানমালের রক্ষায় প্রশাসনসহ সকলের সহযোগীতা কামনা করছি।

মামলা ০৭/১৮ এর তদন্ত অফিসার এয়ারপোর্ট থানা পুলিশের এ.এস.আই নাজমুল ইসলাম জানান, আদালতের নির্দেশে আমি সঙ্গীয় পুলিশ নিয়ে বিরোধীয় জায়গায় ১৪৪ ধারা জারি করি। উভয় পক্ষকে জমিতে প্রবেশে নিষেধ করে আসছি।

এ বিষয়ে উপজেলার চাঁদপাশা ইউনিয়নের গাজীপুর এলাকার আবদুল বারেক মৃধার ছেলে আনছার আলী মৃধা ও আবদুস ছত্তার মৃধার ছেলে ফারুক হোসেন মৃধা বলেন, আমরা মামলার বাদীকে কোনরকম হুমকি প্রদান করি নাই। বরং সে মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত।