আধুনিক ইউনিয়ন পরিষদ গড়তে চান চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মাসুক মিয়া

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:২০ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২১ | আপডেট: ৬:২০:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২১

জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া, তাহিরপুর(সুনামগঞ্জ)প্রতিনিধি: তার উন্নয়নশীল নানামুখী কর্মকাণ্ডের কারণে সমাজের মানুষ তাকে ভালবাসেন। এলাকার মানুষের আলাপচারিতায় একজন সৎ ও যোগ্য নেতৃত্বের কথা উঠলে সর্বাগ্রে তার নামটি উঠে আসে। ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামের উন্নয়নের চাকা সচল রাখতে ও সুখে দুঃখে মানুষের দাড়িয়েছেন সব সময় আরও বেশী পাশে দাঁড়াতে তিনি আর কেউ নন তিনি সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের বাসিন্দা,বিশিষ্ট সমাজ সেবক,উত্তর বড়দল ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ও বাদাঘাট বাজার বনিক সমিতির সাধারন সম্পাদক মাসুক মিয়া। এবছর ইউপি নির্বাচনে উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের আ,লীগের সমর্থিত সাম্ভব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করবেন। তিনি নির্বাচিত হলে আধুনিক ও একটি সমৃদ্ধশালী ইউনিয়ন পরিষদ গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন,আমি এই ইউনিয়নের মানুষের সুখে দুঃখে সবসময় পাশে থাকতে চাই। আমার যতটুকু সামর্থ্য আছে তা দিয়ে সকলের উপকার করতে ও মা মাটি ও মানুষের কল্যাণে কাজ করে যেতে চাই। এই প্রত্যাশা করে তিনি সর্বস্তরের জনগণের কাছে দোয়া প্রার্থনা করেছেন।

স্থানীয় স‚ত্রে জানা গেছে,আ,লীগ পরিবারের সদস্য মাসুক মিয়া। যা তার রক্তের সাথে মিশে আছে। গত নির্বাচনেও বিএনপির প্রার্থীর সাথে তার প্রতিপক্ষের কারনে পেড়ে উঠতে পারেন নি সামান্য ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছেন। তবে নির্বাচনে পরাজিত হয়েও হতাশ হননি। একজন জনপ্রতিনিধির মতই মানুষের পাশে থেকেছেন। উন্নয়নের জন্য কাজ করেছেন। বয়স্কদের জন্য বয়স্ক ভাতার কার্ড,প্রতিবন্ধী কার্ডসহ সমাজের উন্নয়নম‚লক বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে নিজেকে নিয়োজিত করেছেন। সাধারণ মানুষের মুখে মুখে তার হাজারও উপকারের কথা শোনা যায়।

ওই ওয়ার্ডের এক বাসিন্দা আবুল মিয়া বলেন,গরিব ও মেহনতি মানুষের সুখে দুঃখে সব সময় মাসুক মিয়া দাঁড়ান। তিনি একজন সাধারণ পরিবারের সন্তান। তাকে আমরা সকলেই ভালোবাসি,চেয়ারম্যান হিসেবে আমরা তাকেই চাই। নৌকা মার্কার দলীয় মনোনয়ন পেলে বিপুল ভোটে বিজয়ী হবে।

এরশাদ মিয়া নামে আরেক বাসিন্দা বলেন,আমাদের প্রিয় একজন মানুষ মাসুক মিয়া। তার দ্বারা সমাজের মানুষের উপকার হয়েছে আর হচ্ছে প্রতিনিয়ত। সে দিন-রাত মানুষের সেবায় নিয়োজিত থাকে। কারও উপকার না করলেও ক্ষতি করে নাই। আমাদের সাধারণ মানুষের দাবি আমরা চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চাই।

সুজন নামে এক বাসিন্দা জানান,আমাদের সুখে দুঃখে সব সময় পাশে থাকেন যিনি তিনি মাসুক মিয়া। তার দ্বারা সমাজের উন্নয়ন হবেই। সাধারণ মানুষের উপকারে তিনি সর্বদা কাজ করেন। এমন সৎ ব্যক্তিই চেয়ারম্যান হবার যোগ্যতা রাখে।

বিশিষ্ট সমাজ সেবক,উত্তর বড়দল ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ও বাদাঘাট বাজার বনিক সমিতির সাধারন সম্পাদক মাসুক মিয়া বলেন,আমি আমার জীবনের বাকী সময় টুকু অসহায় মানুষের কল্যানে কাজ করতে চাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার সাথে একাত্য পোষন করে আমার সবটুকু শ্রম দিয়ে উত্তর বড়দল ইউনিয়নকে একটি আদর্শ ও ডিজিটাল ইউনিয়নে রুপান্তর করতে সবার কাছেই সহযোগীতা,দোয়া এবং ভোট চাই। আমি আশাবাদী জননেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা দলীয় মনোনয়ন দিবেন আর জনগন সেই সম্মান রক্ষায় আমাকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করবেন।