আন্তর্জাতিক সংস্থা ডব্লিউএইচডি‘র “ষ্টার অব কোভিট” এ্যাওয়ার্ড পেলেন বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের ডেপুটি গভর্নর সৈয়দ আজমুল হক

লন্ডন ভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংস্থা

প্রকাশিত: ৭:৫১ অপরাহ্ণ, জুলাই ৩, ২০২০ | আপডেট: ৭:৫১:অপরাহ্ণ, জুলাই ৩, ২০২০

লন্ডন ভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংস্থা ডব্লিউএইচডি‘র গ্লোবাল সোসাল ওয়ের ফেয়ার (হিউম্যান পিলার অব সোসাইটি) ক্যাটাগিরি “কোভিড তারকা” (STARS OF COVID) এ্যাওয়ার্ড পেলেন বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের (BHRC) পক্ষে ডেপুটি গভর্নর গৌরনদী তথা বরিশালের কৃতি সন্তান সৈয়দ আজমুল হক। গত ২৮ জুন লন্ডনে সংস্থার মিডিয়া চ্যানেলের লইফ প্রোগ্রামে সৈয়দ আজমুল হকের “কোভিড তারকা” সম্মাননা জন্য নির্বাচিত হওয়ার ঘোষনা দেয়া হয়। মানবতার সেবায় নিয়োজিত (BHRC) ডেপুটি গভর্নর সৈয়দ আজমুল হক বিশেষ অবদান রাখায় “কোভিট তারকা” এ্যাওয়ার্ড এর জন্য নির্বাচিত হন।

গত ২৮ জুন বেলা ২টায় (লন্ডন সময়) ডব্লিউএইচডি‘র গ্লোবাল সংস্থার নিজস্ব মিডিয়া চ্যানেলের লাইফ প্রোগ্রামে “কোভিট তারকা” পদক বিতরণী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ‘বিশ্ব মানবতাবাদী ড্রাইভ (World Humanitarian Drive)’-এর প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ড. আব্দুল বাসিত সৈয়দ-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, কসোভোর প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি এইচ.ই. ফাতমির সেজদিও।

বিশেষ অতিথি ছিলেন নেপালের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এইচ.ই. মাধব কুমার নেপাল, আন্দালুশিয়া-স্পেন-এর জাতীয় অধিবেশনের সভাপতি সম্মানিত পেড্রো আই. আলতামিরানো, ইউ.পি.এফ. (যুক্তরাজ্য)-এর সাধারণ সম্পাদক জনাব রবিন মার্শ । অনুষ্ঠানে আনুষ্ঠনিকভাবে বিশ্ব মানবতাবাদী ড্রাইভ (World Humanitarian Drive-WHD) প্রদান ছাড়াও সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ড. আব্দুল বাসিত সৈয়দ কর্তৃক রচিত ‘১০০ কভিড তারকা (Stars of Covid 100)’ বই এবং ‘সুখের পুনঃপ্রকৌশল (Re-engineering Happiness) বইয়ের মোড়ক উম্মোচন করা হয়।

জানা গেছে, ‘বিশ্ব মানবতাবাদী ড্রাইভ (World Humanitarian Drive)’-এর প্রতিষ্ঠাতা ড. আবদুল বাসিত সৈয়দ “কভিড তারকা” (STARS OF COVID) এ্যাওয়ার্ড ঘোষনা করেন। আন্তর্জাতিকভাবে এই পদকের মনোনয়ন চূড়ান্ত করতে সামাজিক সংস্থা ও ব্যক্তির কাছ থেকে করোনাকালীন সময়ে সামাজিক কর্মকান্ডের প্রমানাদিসহ আবেদন আহবান করে। চূড়ান্ত মনোনয়ন দেয়ার জন্য একটি মনোনয়ন বোর্ড গঠন করেন। ‘কভিড তারকা (STARS OF COVID)’ ইভেন্টে বিশ্বের ৭টি মহাদেশ হতে ৩৫টি দেশের ১৬০০-রও অধিককে মনোনয়ন পাওয়ার জন্য সিবি, ভিডিও ক্লিবসহ যাবতীয় প্রমানপত্র জমা দেন।

ওই প্রমানপত্র ছাড়াও ডব্লিউএইচডি‘র গ্লোবাল হিউম্যান এ্যাওয়ার্ড পিলার অব সোসাইটির ‘বিশ্ব মানবতাবাদী ড্রাইভ (World Humanitarian Drive)’ কর্তৃক আয়োজিত ‘কভিড তারকা (STARS OF COVID) এ্যাওয়ার্ডের জন্য সংস্থাটি তাদের নিজস্ব টিম দ্বারা প্রতিটি দেশে মনোনয়ন প্রত্যাশী সম্পর্কে তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করেন। ৩৫টি দেশের ৫৫০ জনেরও অধিক প্রতিযোগীর মধ্য হতে ১০০ জনকে প্রাথমিকভাবে মনোনয়ন দেন। ১২টি গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য ১২টি ক্যাটাগিরিতে এ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। ক্যাটাগিরিগুলো হলো রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক ও মাধ্যম, সরকারি কর্মকর্তা ও প্রশাসনিক সেবা, উদ্ভাবন ও প্রযুক্তি, চিকিৎসা ক্ষেত্র, ট্রাস্ট/দাতব্য সংস্থা, সমাজকর্মী/স্বেচ্ছাসেবী, উদ্যোক্তা/ব্যবসায়/কর্পোরেট, জননন্দিত ব্যক্তিত্ব/বিনোদনকারী, শিক্ষা ও গবেষণা, সমাজকল্যাণ সংস্থা ও পরিবেশ এবং পরিবেশ সংরক্ষণ।

আয়োজক সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ড. আবদুল বাসিত সৈয়দ বলেন, মানবতার সর্বোচ্চ কল্যাণ সাধনায় নিয়োজিত এসকল তারকাগণকে সম্মানিত করতে পেরে ‘বিশ্ব মানবতাবাদী ড্রাইভ (World Humanitarian Drive’ গর্বিত। এই ইভেন্টের প্রধান উদ্দেশ্য ছিল যে সকল নিবেদিতপ্রাণ স্বেচ্ছাসেবীদেরকে কৃতজ্ঞতা ও সম্মান জানানো। যারা কভিড-১৯ সংকটকালীন সময়ে মানবতার উন্নয়নে অবদান রেখেছেন। করোনায় যখন গোটা বিশ্বই থমকে গেছে এবং সামনে এগিয়ে যেতে আতঙ্কিত, তখন এই তারকাগণ করোনার সাথে সংগ্রামরত বিশ্ববাসীর দিকে তাদের সাহায্যোর হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। ‘কভিড তারকা (STARS OF COVID)’-এর মনোনয়ন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে নির্বাচিত সম্মানিত করতে পেরে মূলত ভাল কাজে প্রেরনা সৃষ্টি করছি। অত্যন্ত স্বল্প সময়ের মধ্যেই বৈশ্বিক স্বীকৃতিস্বরূপ দেয়া হয়। আগামিতেও এ ধারা অব্যহত রাখবো।

দেশের কল্যানে ও মানবাধিকার সংরক্ষনে কাজ করে “বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন-BHRC” এবং (ডেপুটি গভর্নর) সৈয়দ আজমুল হক আন্তর্জাতিক সম্মাননা “কোভিট তারকা” এ্যাওয়ার্ড অর্জন করায় বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের (BHRC) প্রতিষ্ঠাতা প্রতিস্ঠাতা ও সেক্রেটারি জেনারেল ড. সাইফুল ইসলাম দিলদার প্রতিক্রীয়ায় বলেন, মানবতাবাদী সৈয়দ আজমুল হক আন্তর্জাতিক সম্মানজনক স্বীকৃতি এ্যাওয়ার্ডে বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন-BHRC অত্যন্ত আনন্দিত ও গর্বিত। একজন নেতা কখনো একা জয়লাভ করতে পারেন না সহযোদ্ধার সহায়তা ছাড়া। সংগঠনের সফলতা কিংবা ব্যার্থতা নির্ভর করে তার সহকর্মীদের নিয়েই।তাই আমি আমার সহকর্মীদের নিয়ে গর্বিত। বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন-BHRC এর কভিড তারকা (STARS OF COVID) অর্জন এটা কোন ব্যক্তির অর্জন নয়, এটা বিশ্বে বাংলাদের অর্জন। সৈয়দ আজমুল হক বিদেশে বাংলাদেশকে সম্মানিত করেছেন।

বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন- BHRC’এর পক্ষে “STARS OF COVID-2020” প্রতিনিধিত্বকারী (ডেপুটি গভর্নর ) সৈয়দ আজমুল হক বলেন, “ভালো এবং সৎকর্মের অবশ্যই পুরস্কার রয়েছে। আর মানুষ কাউকে পুরস্কার কিংবা তিরস্কার করতে পারেনা যদি, মহান আল্লাহ্ তা না চান। ভালো কাজ কখনও বৃথা যায় না সফলতা আসবেই। আমাদের এ অর্জন আমাদের (BHRC)-এর একার নয়, এটি মানবতাবাদী সকলকর্মীসহ দেশ ও বাঙ্গালী জাতির জন্যেও অত্যন্ত সন্মানের। আমি এই এ্যাওয়ার্ড দেশের মানবাধিকার বঞ্চিত ও অসহায় মানুষের জন্য উৎসর্গ করলাম।