আন্দামানে আদিম জনজাতির হামলায় খুন মার্কিন পর্যটক

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২:৪৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২২, ২০১৮ | আপডেট: ২:৪৮:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২২, ২০১৮
সংগৃহীত

আন্দামানে প্রাণ গেল এক মার্কিন পর্যটকের৷ নিহত ওই পর্যটকের নাম জন অ্যালেন চাউ৷ মৎস্যজীবীদের সঙ্গে আদিম জনজাতির মানুষদের দেখতে গিয়েছিলেন তিনি৷ সেখানেই ঘটে বিপত্তি৷ তীর-ধনুকের আক্রমণেই মৃত্যু হয়েছে পর্যটকের৷ দেহটি এখনও উদ্ধার করতে পারেনি আন্দামান প্রশাসন৷ চলছে তল্লাশি৷

গত ১৬ নভেম্বর একাই আন্দামান বেড়াতে আসেন জন অ্যালেন চাউ৷ আন্দামানের বিভিন্ন দ্বীপে বাস করে নানা আদিম জনজাতি। বাকি বিশ্বের সঙ্গে যোগাযোগ পছন্দ করে না তারা। তেমনই একটি জনজাতি সেন্টিনালি। আন্দামানের উত্তর সেন্টিনালি দ্বীপে থাকেন ওই আদিম জনজাতিভুক্ত মানুষেরা।

২০১১ সালের জনসুমারি অনুযায়ী, যাদের জনসংখ্যা ছিল ৪০৷ ওই সেন্টিনালি দ্বীপের আদিম জনজাতিদের দেখার ইচ্ছা ছিল বছর সাতাশের জনের৷ সাতজন মৎস্যজীবীর সঙ্গে আন্দামানের উত্তর সেন্টিনালি দ্বীপে ওইদিনই রওনা দেন তিনি৷ কিন্তু সেন্টিনালি দ্বীপে পৌঁছতেই ঘটে বিপত্তি৷ তাঁর উপর তীর-ধনুক নিয়ে হামলা করেন আদিবাসীরা।

এখানেই শেষ নেয়৷ এরপর সেন্টিনালি জনজাতির মানুষেরা ওই পর্যটকের দেহ টানতে টানতে সমুদ্রের পাড়ে নিয়ে চলে যায়৷ সেখানেই বালিতে পুঁতে দেওয়া হয় জন অ্যালেন চাউয়ের দেহ।

পরিস্থিতি বুঝে সেন্টিনালি দ্বীপ থেকে কোনওক্রমে প্রাণে বেঁচে ফিরে আসেন ওই সাত মৎস্যজীবী৷ তাঁদের মাধ্যমেই ঘটনার কথা ছড়িয়ে পড়ে৷ খবর পেয়েই মার্কিন পর্যটককে উদ্ধারের তৎপরতা শুরু হয়৷

হেলিকপ্টারের মাধ্যমে জন অ্যালেন চাউয়ের দেহের খোঁজ শুরু করেছে আন্দামান প্রশাসন৷ তবে নিরাপত্তার স্বার্থে ওই এলাকায় হেলিকপ্টার নামিয়ে দেহ খুঁজে বের করে আনার চেষ্টা করছেন প্রশাসনিক আধিকারিকরা৷

প্রশাসন সূত্রে খবর, সেন্টিনালি দ্বীপ সংরক্ষিত৷ উচ্চ পর্যায়ের অনুমতি না থাকলে ওই দ্বীপে ঢুকতে দেওয়া হয় না কাউকেই৷ তা সত্ত্বেও কীভাবে মার্কিন পর্যটক ওই সংরক্ষিত এলাকায় গেলেন, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে৷ জনকে সেন্টিনালি দ্বীপে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগে ইতিমধ্যেই সাত মৎস্যজীবীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷ তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই মার্কিনি পর্যটকের দেহের খোঁজ চালানো হচ্ছে৷