আপনি যাকে ভালোবাসেন তাকে বিয়ের জন্য দুআ করতে পারবেন কি?

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:১৮ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২, ২০১৮ | আপডেট: ১০:২০:অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২, ২০১৮
ছবিঃ সংগৃহিত

টিবিটি ধর্ম ও জীবনঃ যাদের বিয়ের আগে প্রেম করা, নারী পুরুষের সম্পর্ক এই বিষয়গুলোতে ইসলামের অবস্থান নিয়ে সন্দেহ আছে তাদেরকে ধৈর্যসহকারে এই লেখাটা পড়ার অনুরোধ করছি! এই বিষয়ে প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন এক ভাই। এখানে প্রশ্ন আর উত্তরটা দেওয়া হল……

প্রশ্ন: কোন ছেলে কোন মেয়েকে, অথবা কোন মেয়ে কোন ছেলেকে পছন্দ করে, গোপনে ভালোবাসে। এমতাবস্থায় সে যদি আল্লাহর কাছে দুআ করে যেন সে ছেলে বা মেয়ের সাথে যেন তার বিয়ে হয় – তাহলে এই ভালোবাসা এবং আল্লাহর কাছে দুআ করা কি ভুল হবে?

উত্তর:ইসলামে আল্লাহ হতে বিমুখতা, নারী-পুরুষের বিবাহ-বহির্ভূত প্রেম ভালোবাসা বা বন্ধুত্ব, একান্ত প্রয়োজন ব্যতিরেকে পারস্পরিক কথোপকথন, নির্জনে দুজনের একাকীত্ব গ্রহণ – ইত্যাদি কাজ নিষিদ্ধ রয়েছে।

অতএব, এ পছন্দ বা ভালোবাসা যদি তাকে আল্লাহর ভালবাসা থেকে বিমুখ না করে এবং কোন প্রকার হারাম আলাপন, সাক্ষাৎ ও নিষিদ্ধ কার্যকলাপের দিকে নিয়ে না যায় তাহলে এতে কোন অসুবিধা নেই। অনুরূপভাবে এ ব্যক্তি যেন তার ভাগ্যে জুটে এমন দুআ করতেও কোন অসুবিধা নেই; যতক্ষণ পর্যন্ত এই নারী বা পুরুষ আল্লাহকে ভয় করে এবং ইসলামে নিষিদ্ধ যে কোন কার্যকলাপ থেকে বিরত থাকে।

পবিত্র কুরআনে আল্লাহর সেই বাণীটি মুসলিম যুবক যুবতীদের মনে রাখা চাই – যাতে তিনি বলেছেন,

الْخَبِيثَاتُ لِلْخَبِيثِينَ وَالْخَبِيثُونَ لِلْخَبِيثَاتِ ۖ وَالطَّيِّبَاتُ لِلطَّيِّبِينَ وَالطَّيِّبُونَ لِلطَّيِّبَاتِ…

“দুশ্চরিত্রা নারীরা দুশ্চরিত্র পুরুষদের জন্য এবং দুশ্চরিত্র পুরুষেরা দুশ্চরিত্রা নারীদের জন্য; অনুরূপ সচ্চরিত্রা নারীগণ সচ্চরিত্র পুরুষগণের জন্য এবং সচ্চরিত্র পুরুষগণ সচ্চরিত্রা নারীগণের জন্য…” –সূরা নূর:২৬
Add Image
অতএব, আমরা যেন সমস্ত অনাচার, পাপাচার ও ফিতনাহ হতে বেঁচে থেকে আল্লাহর কাছে দুআ করি, নিজেদের চরিত্রকে পবিত্র রাখি, অথবা কোন অন্যায়ে লিপ্ত থাকলে এ থেকে ফিরে এসে চরিত্রকে পুনর্গঠন করি – তবে আল্লাহই ইহকাল পরকালের জন্য উত্তম জীবন সঙ্গী উপহার দেবেন ইনশাআল্লাহ। আল্লাহ সহায় হোন।

উত্তর প্রদান করেছেন মুহাম্মাদ ফয়জুল্লাহ, মুতাখাসসিস ফিল ফিকহিল ইসলামী, আল-জামিআতুল আহলিয়া, দারুল উলুম হাটহাজারী, চট্টগ্রাম।
Add Image