আমতলী ইউনিয়ন ছাত্রলীগ কমিটি স্থগিত সাধারণ সম্পাদকের টাকা লেনদেনর অডিও ফাঁস

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:০৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১ | আপডেট: ৯:০৩:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১

এইচ এম কাওসার মাদবর, আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি:

গঠনতন্ত্র ও সাংগঠনিক প্রক্রিয়া অনুসার না করে টাকার বিনিময়ে আমতলী উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নের ছাত্রলীগের আংশিক কমিটি ঘোষনা ও সাধারণ সম্পাদকের টাকা লেনদেনের অডিও ফাঁসসহ নানাবিধ অনিয়মের অভিযোগে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মাহবুবুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন সবুজকে কারন দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। রবিবার রাতে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি জুবায়ের আদনান অনিক ও সাধারণ সম্পাদক তানভীর হোসাইন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে ছয়টি ইউনিয়ন ছাত্রলীগ কমিটি স্থগিত করে কেন তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে না তা নোটিশ প্রাপ্তির তিন কার্যদিবসের মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্য বলা হয়েছে।

জানাগেছে, গত শুক্রবার রাতে আমতলী উপজেলার গুলিশাখালী, কুকুয়া, আঠারোগাছিয়া, হলদিয়া, আমতলী সদর ও আড়পাঙ্গাশিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগ আংশিক কমিটি ঘোষনা করেন উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মোঃ মাহবুবুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন সবুজ। এ কমিটি ঘোষনার পরেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ আমতলীতে হইচই পড়ে যায়। উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে কমিটি ঘোষনা , সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন সবুজের টাকা লেনদেনের অডিও ফাঁসসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ উঠে। বরগুনা জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি জুবায়ের আদনান অনিক ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ তানভীর হোসাইনকে এ কমিটি গঠনে অনিয়ম ও অবৈধ লেনদেনের অভিযোগ করেন পদ বঞ্চিত ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতারা এবং তারা এ অবৈধ কমিটি নিয়ে আন্দোলনের হুমকি দেন। এ অনিয়মের অভিযোগের প্রেক্ষিতে রবিবার রাতে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ঘোষিত ইউনিয়ন কমিটি স্থগিত করে নোটিশ প্রাপ্তির তিন কার্যদিবসের মধ্যে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মোঃ মাহবুবুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন সবুজের বিরুদ্ধে কেন সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে না তার জবাব চাওয়া হয়েছে।

অডিওটি শুনতে এখানে ক্লিক করুন:

হলদিয়া ইউনিয়নের নিয়াজ মোশের্^দ তনয় বলেন, রায়হান নামের আমার এক আত্মীয়কে ছাত্রলীগ কমিটিতে পদ দেয়ার জন্য আমার কাছে ২০ হাজার টাকা দাবী করেন। ওই টকা না দেওয়ার তাকে পদ না গিয়ে টাকার বিনিময় নাইম উদ্দিন মোল্লা নামের একজনকে সাধারণ সম্পাদকের পদ দেয়া হয়েছে। তিনি আরো বলেন, উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক সবুজ আমার কাছে টাকা চাওয়ার অডিও ফাঁস হওয়ায় আমাকে জীবন নাশের হুমকি দিচ্ছে।

আঠারোগাছিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা হাবিবুর রহমান হাসিব বলেন, কমিটি ঘোষনার আগে উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক সবুজ আমাকে দেখা করতে বলেছিল। কিন্তু আমি দেখা না করায় বিবাহিত একটি অছাত্রকে টাকার বিনিময়ে কমিটির সভাপতি পদ দিয়েছেন। তিনি আরো বলেন, কুকুয়া ইউনিয়নের ছাত্রদলের এক নেতাকে বর্তমানে ছাত্রলীগ সভাপতি করেছেন ।

আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন সবুজ কারন দর্শানোর নোটিশ প্রাপ্তির কথা স্বীকার করে বলেন, করোনার কারনে ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সম্মেলন করতে পারিনি, তাই আংশিক সাব কমিটি ঘোষনা করা হয়েছে। টাকা লেনদেনের কথা অস্বীকার করে তিনি আরো বলেন, দ্রæত নোটিশের জবাব দেয়া হবে।

বরগুনা জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মোঃ জুবায়ের আদনান অনিক আমতলী উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে কারন দর্শানোর নোটিশ দেয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, ইউনিয়ন কমিটি গঠনে অবৈধ লেনদেনের মৌখিক অভিযোগ পেয়েছি এবং গঠনতন্ত্র ও সাংগঠনিক প্রক্রিয়ায় কমিটি গঠন না হওয়ায় ইউনিয়ন কমিটি স্থগিত করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, নোটিশের জবাবপ্রাপ্তি সাপেক্ষে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।