আমাকে লাথি মারা বন্ধ করো, প্রতিপক্ষকে মেসি

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:৪২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০ | আপডেট: ৯:২৮:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০

বার্সেলোনা সমর্থকদের মনে শান্তি ফিরেছে গত শনিবার। তৃতীয় বিভাগের দল জিমনাস্তিক দে তারাগোনার বিপক্ষে সেদিন প্রাক মৌসুম প্রস্তুতির অংশ হিসেবে প্রীতি ম্যাচ খেলতে নেমেছিল বার্সা। সমর্থকদের স্বস্তি দিয়ে মেসির হাতেই বার্সা অধিনায়কের আর্মব্যান্ড তুলে দেওয়া হয়েছে। তবে প্রথমার্ধের খেলায় মেসি মোটেও স্বস্তিতে ছিলেন না। হাভিয়ের রিবেয়েস নামের এক নাছোড়বান্দা যে সেদিন তাঁকে বড্ড যন্ত্রণা দিয়েছেন।

দুই দলের মধ্যে যোজন যোজন তফাত। তবে প্রীতি ম্যাচের ব্যবধানটা ৩-১ এ রাখতে পেরেছিল জিমনাস্তিক। কারণ, প্রীতি ম্যাচের আবহ ভুলে যেকোনোভাবেই হোক প্রতিপক্ষের মূল অস্ত্রকে দমিয়ে রাখার পরিকল্পনা নিয়ে নেমেছিল তারা। যেমন মেসিকে আটকাতে আদি ও অকৃত্রিম উপায়ই বেছে নিয়েছিলেন মিডফিল্ডার হাভিয়ের রিবেয়েস। ক্রমাগত লাথি মেরে মেসিকে স্বাভাবিক খেলা খেলতে দেননি এই মিডফিল্ডার। এতে ক্ষেপে গিয়ে মেসি একপর্যায়ে তাঁকে বেশ করে ‘বকে’ দেন। প্রতিপক্ষের এমন কাণ্ডে অতিষ্ট হয়ে এক পর্যায়ে মেসি রেগে গিয়ে বলেন-তুমি কি সারাক্ষণ আমাকে লাথি মারা বন্ধ করবে?

মেসিকে আটকাতে গিয়ে খুব বেশি ট্যাকল করছিলেন রিবেয়াস। তারই এক পর্যায়ে মেসি ক্ষোভ ঝাড়েন বলে ‘এল চিরিংগিতো’-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানান জিমনাস্তিকের মিডফিল্ডার।

“(সে বলল) এই বোকা, তুমি কি করছ? সারাক্ষণ আমাকে লাথি মারা বন্ধ করবে কি? লাথি মারা বন্ধ কর। কথা শুনে আমি বিস্মিত হয়েছিলাম এবং তাকে বলেছিলাম, সে সেরা খেলোয়াড় এবং সে যেন ছুটতে না পারে এজন্য তাকে আমাকে কিক মারতে হবে।”

মেসি খুব রেগে থাকায় তার সঙ্গে জার্সি বদলের চাওয়াটাও পূরণ হয়নি বলে জানান রিবেয়াস।

“বিরতির সময় তার জার্সি পেতে চেয়েছিলাম কিন্তু সে আমার উপর ক্ষুব্ধ ছিল। শেষ পর্যন্ত অঁতোয়া গ্রিজমানের সঙ্গে জার্সি বদল করেছিলাম।”