‘আমি নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছি’ : ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী রফিকুলের

হাবিবুল্লাহ হেলালি হাবিবুল্লাহ হেলালি

দোয়ারাবাজার(সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৯:৪৯ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১৯ | আপডেট: ৯:৫০:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১৯

দোয়ারাবাজারে নিজে নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন মর্মে সাংবাদিকদের সঙ্গে লোম হর্ষক বর্ণনা দিয়েছেন আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সম্ভাব্য ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী (স্বতন্ত্র) ব্যবসায়ী মো. রফিকুল ইসলাম।

সম্প্রতি তিনি উপজেলার নরসিংপুর ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে ইউপি চেয়ারম্যান নুর উদ্দিন আহমদের সভাপতিত্বে এক জনাকীর্ণ সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, আমি আপন ভাই ও এক চাচার ষড়যন্ত্রের কারণে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছি। বার বার আমাকে প্রাণে মেরে ফেলার চেষ্ঠা করা হয়েছে। আমাদের পরিবারে পৈতৃক সম্পত্তির ভাগভাটোয়ারা নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হলে বেশ কিছ দিন পূর্বে আমাকে প্রাণে মারার উদ্দেশ্য রাতের অন্ধকারে একদল অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী আমাকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে।

ওই ঘটনায় আমি দীর্ঘদিন উন্নত চিকিৎসায় নতুন জীবন ফিরে পেলেও থেমে নেই আমার বিরুদ্ধে অভ্যন্তরীণ নানা ষড়যন্ত্র। অজ্ঞাত নামা একদল সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে মামলা করার পর থেকেই আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের মাত্রা আরো বেড়ে গেছে। অভ্যন্তরীণ ষড়যন্ত্রের কারণে আমাকে ফাঁসাতে একাধিক মামলায় জড়ানো হয়েছে।

আমি বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করে ভাইস চেয়ারম্যান পদে সম্মান জনক ভোট পেয়েছি। এবারও একই পদে নির্বাচন করার লক্ষ্যে দীর্ঘদিন ধরে মাঠে থাকায় আমার ব্যক্তি ইমেজ নষ্ঠ করতে কুচক্রী মহল উঠেপড়ে লেগেছে। আমি এখন চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছি।

ইউপি চেয়ারম্যান নুর উদ্দিন আহমদ বলেন, রফিকুল পারিবারিক কলহের শিকার। আগেও তার উপর বড় ধরণের হামলা করে অস্ত্রধারীরা তাকে বেদড়ক মারধর করেছে। সে মূলত আপনজনদের ইন্ধনে নানাবিধ ষড়যন্ত্রের শিকার। এলাকার সর্বস্তরের মানুষ এব্যাপারে অবহিত রয়েছে।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ইউপি সদস্য আমীর হোসেন, আব্দুল হান্নান মিয়া, নুরুল আমিন, জয়নাল আবেদীন, সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুছ সোবহান ও স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মী।