আর একজন রোহিঙ্গাও নিতে পারব না : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৫:৫৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১ | আপডেট: ৫:৫৭:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১
পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। ফাইল ছবি

আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের অনুরোধে আমি আর একজন রোহিঙ্গাও নিতে পারব না বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন।

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) তার তিনদিনের যুক্তরাষ্ট্র সফর নিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।

কিছু রোহিঙ্গা ভেসে বেড়াচ্ছেন, আন্তর্জাতিক মহল তাদের বাংলাদেশকে নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে। সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমি আর একজন রোহিঙ্গাও নিতে পারব না, অনেক নিয়েছি। যারা বলছেন রোহিঙ্গা নিতে, তাদেরকে বলব, আপনারা নেন। আমাদের ক্যাম্পে এক বর্গমাইলে ৯০ হাজার রোহিঙ্গা বসবাস করে।

ব্রিফিংয়ে সিঙ্গাপুর আরও ১০ হাজার ও রুমানিয়া ২ হাজার নতুন শ্রমিক নেবে বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, “সিঙ্গাপুর থেকে খবর পেলাম, এর মধ্যে তারা ১০ হাজার অতিরিক্ত লোকের চাকরির সংস্থান করবে।

“সিঙ্গাপুরে আমাদের মিশন প্রতিনিধি পাঁচশর অধিক ওয়ার্ক পারমিট ইস্যু করতেছে। এটা সুখবর, আমি সবার সাথে শেয়ার করতে চাই।”

নতুন করে বাংলাদেশ মিশন স্থাপন করা ইউরোপের দেশ রোমানিয়াতেও আরও দুই হাজার লোকের কর্মসংস্থান হতে যাচ্ছে বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন।

তিনি বলেন, “রোমানিয়াতে আমরা নতুন মিশন খুলেছি। সেখানে এর মধ্যে প্রায় ১৪০০ লোক গিয়েছে। কালকে খবর পেলাম সেখানে আরও দুই হাজার লোক নেবে।”

মুরগি জবাইয়ের কারখানায় এই কর্মসংস্থান হবে জানিয়ে মোমেন বলেন, “মজার কথা শুনলাম, ওখানে অনেককে নেবে মুরগি হালাল করার ফ্যাক্টরিতে। ওরা জার্মানি, ফ্রান্স এগুলোতে হালাল মাংস পাঠায়। তারা সে ধরনের লোক খুঁজতেছে। এটা খুবই আগ্রহ উদ্দীপক।”

সিঙ্গাপুরে কাজের পরিবেশ সন্তোষজনক হওয়ার কথা তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, “সিঙ্গাপুরে যারা কাজ করে, মোটামুটি তাদের অভিযোগ-আপত্তি খুব একটা থাকে না।”

যুক্তরাষ্ট্র সফর নিয়ে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সফরে বাংলাদেশের বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে কথা হবে। বাংলাদেশ নিয়ে অনেক নেতিবাচক প্রচার হচ্ছে। তিনি দুইটি মিডিয়ায় এসব নিয়ে কথা বলবেন। বঙ্গবন্ধুর খুনি রাশেদ চৌধুরীকে ফিরিয়ে আনার ব্যাপারেও আলোচনা হবে।

মোমেন বলেন, ভারতের পরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয় শঙ্কর ঢাকায় আসবেন, তাকে স্বাগত জানাই। তার সফরে ভারত-বাংলাদেশ অসীমাংসিত ইস্যু নিয়ে এমনভাবে প্রস্তুতি নেব, যাতে নরেন্দ্র মোদির সফরে এসব মসৃণভাবে সমাধান হয়।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আজকে রাতে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্য ঢাকা ছাড়বেন। সেখানে তিনি ২৪ ফেব্রুয়ারি দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করবেন।