আলোচনার মাধ্যমেই দ্বন্দ্ব নিরসন করতে হবে: এরদোয়ান

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:৪৭ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১১, ২০২১ | আপডেট: ৯:৪৭:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১১, ২০২১

এবার রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে চলমান উত্তেজনা নিরসনের আহ্বান জানিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপ এরদোয়ান।

শনিবার (১০ এপ্রিল) ইস্তাম্বুলে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলদিমির জেলেন্সকির সঙ্গে বৈঠকে এরদোয়ান বলেন, আলোচনার মাধ্যমেই দ্বন্দ্ব নিরসন করতে হবে।

এদিকে, ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলের পরিস্থিতি মোকাবেলায় রুশ সেনারা প্রস্তুত রয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়।

সম্প্রতি ইউক্রেনের উত্তর ও পূর্বাঞ্চলীয় সীমান্তে সামরিক শক্তি বৃদ্ধি করে রাশিয়া। মোতায়েন করা হয় হাজার হাজার সেনা। এ নিয়ে কিয়েভ উদ্বেগ জানালে পাশে দাঁড়ায় পশ্চিমা দেশগুলো। এরইমধ্যে ইউক্রেনকে সমর্থন জানিয়ে দুটি যুদ্ধজাহাজ পাঠানোর ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

এবার সেই তালিকায় যুক্ত হলো তুরস্ক। শনিবার ইস্তাম্বুলে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলদিমির জেলেন্সকির সঙ্গে বৈঠক করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপ এরদোয়ান। বলেন, ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে দেখা দেয়া সঙ্কট সমাধানে যে কোনো ধরনের সহযোগিতা করতে প্রস্তুত আঙ্কারা। ইউক্রেনের সার্বভৌমত্ব ও আন্তর্জাতিক আইন মেনে আলোচনার মাধ্যমে দ্বন্দ্ব নিরসনের আহ্বান জানান তিনি।

ওই অঞ্চলে শান্তি ফেরানোই মূল লক্ষ্য আমাদের। চলমান উত্তেজনা নিরসনে দুই দেশকেই উদ্যোগ নিতে হবে। এক্ষেত্রে সব ধরণের সহযোগিতা করবো আমরা।

এদিকে, রাশিয়ার দাবি ওই অঞ্চলে চলমান অস্থিরতা নিরসনের জন্যই সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। সেখানে মস্কো আগ বাড়িয়ে কোনো হামলা চালাবে না, তবে কিয়েভ যদি হামলা চালায় তাহলে তার সমুচিত জবাব দেয়া হবে বলেও উল্লেখ করা হয়।

২০১৪ সালে ইউক্রেনের কাছ থেকে ক্রিমিয়া দখল করে নেয় রাশিয়া। এরপর থেকে ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে দেশটির সশস্ত্রবাহিনী ও রাশিয়া সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদীদের মধ্যে বিভিন্ন সময়ে সংঘর্ষ হয়ে আসছে। সম্প্রতি আবারো এ নিয়ে দু দেশের মধ্যে দেখা দিয়েছে উত্তেজনা।