আল্লাহ খোকাকে মাফ করুন : অর্থমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৮:৫০ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৪, ২০১৯ | আপডেট: ৮:৫০:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৪, ২০১৯

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অবিভক্ত ঢাকার সাবেক মেয়র মুক্তিযোদ্ধা সাদেক হোসেন খোকা মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৬৮ বছর।

সোমবার (০৪ নভেম্বর) বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টার দিকে নিউইয়র্কে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়ে রেখে গেছেন তিনি।

অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক এই মেয়রের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কালাম।

বিএনপির এই নেতা সম্পর্কে ক্ষমতাসীন দলের অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, ‘উনার (সাদেক হোসেন খোকা) সঙ্গে আমার পরিচয় খেলার মাঠে। উনি খেলাধুলা পছন্দ করতেন এবং বিভিন্ন সময় তিনি খেলা দেখতে আসতেন। সেখানে তার সঙ্গে আমার পরিচয়। আমি শুধু এটুকু বলব, আল্লাহ তাকে মাফ করুক, ভালো রাখুক এবং বেহেশবাসী করুক।’

বিকেলে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে অর্থমন্ত্রীর নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে খোকা সম্পর্কে তিনি একথা বলেন।

২০০২ সালের ২৫ এপ্রিল অবিভক্ত ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র নির্বাচিত হন খোকা। ২৯ নভেম্বর ২০১১ সাল পর্যন্ত টানা ১০ বছর বিএনপি ও আওয়ামী লীগের শাসনামলে ঢাকা মহানগরের মেয়র ছিলেন তিনি।

২০১৪ সালের ১৪ মে সাদেক হোসেন খোকা চিকিৎসার জন্য যুক্তরাষ্ট্র যান। এরপর থেকে সেখানেই চিকিৎসাধীন ছিলেন। এ সময়কালে দেশে তার বিরুদ্ধে কয়েকটি দুর্নীতি মামলা হয়। এর কয়েকটিতে তাকে সাজাও দেয়া হয়েছে।

বামপন্থী রাজনীতি ছেড়ে আশির দশকে বিএনপির রাজনীতি শুরু করেন তিনি। ১৯৯১ সালের জাতীয় নির্বাচনে ঢাকা-৭ আসন (সূত্রাপুর-কোতোয়ালি) থেকে প্রথমবারের মতো এমপি নির্বাচিত হয়ে আলোচনায় আসেন। ১৯৯৬ সালের নির্বাচনে ঢাকার আটটি আসনের মধ্যে সাতটিতে বিএনপি প্রার্থী পরাজিত হলেও একমাত্র খোকা নির্বাচিত হন।

২০০১ সালের নির্বাচনেও সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে মৎস্য ও পশুসম্পদমন্ত্রী হন। এর আগে ১৯৯৪ সালে সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ হানিফের কাছে পরাজিত হন মির্জা আব্বাস।

খোকাকে ১৯৯৬ সালে মহানগর বিএনপির আহ্বায়কের দায়িত্ব দেয়া হয়। ২০০২ সালের ২৫ এপ্রিল অবিভক্ত ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে তিনি মেয়র নির্বাচিত হন।