আশরাফ আমাকে বড় বোনের মতো শ্রদ্ধা করতো: প্রধানমন্ত্রী

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:২২ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৩০, ২০১৯ | আপডেট: ১১:২৩:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৩০, ২০১৯
ফাইল ছবি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন,আশরাফ আমার পরিবারের সদস্যেদের মতো ছিল, আমাকে বড় বোনের মতো শ্রদ্ধা করতো।আমিও সৈয়দ আশরাফকে নিজের ভাইয়ের মতোই দেখতাম। সে অত্যন্ত সৎ ও মেধাবী রাজনৈতিক নেতা ছিলেন।

সংসদে শোক প্রস্তাবের ওপর বুধবার (৩০ জানুয়ারি) আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এর আগে, আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের মৃত্যুতে জাতীয় সংসদে শোক প্রস্তাব আনা হয়। এরপর সংসদে তার জীবনীর উপর আলোচনা হয়। তার সম্মানে সংসদের বৈঠক ৩৫ মিনিট মুলতবি রাখা হয়। এরপর শুরু হয় প্রেসিডেন্টের বক্তব্য।

শোক প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘প্রতিটি ক্ষেত্রে সে (সৈয়দ আশরাফ) সততার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছে। রাজনৈতিক জ্ঞান, প্রজ্ঞা ও অসাধারণ মেধাসম্পন্ন নেতা ছিল সৈয়দ আশরাফ।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ওর টাকা নেই, পয়সা নেই। কষ্ট করে চলতে হতো। তার চিকিৎসার জন্য যা যা করার আমি তা করেছি। তার মতো একজন প্রজ্ঞাবান ও জ্ঞানী রাজনীতিককের চলে যাওয়ার ক্ষতি কোনদিন পূরণ হওয়ার নয়। তার মৃত্যু দল হিসেবে আওয়ামী লীগের এবং দেশের জন্য সৈয়দ আশরাফের চলে যাওয়া অপূরণীয় ক্ষতি।’

এসময় কিশোরগঞ্জবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘সৈয়দ আশরাফের সততা ও নিষ্ঠার কারণে অসুস্থতা সত্ত্বেও তাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করেছে। তার বোন ডা. লিপিকে উপ-নির্বাচনে মনোনয়ন দিয়েছি। আমরা আশা করি, সৈয়দ আশরাফের স্মৃতি ধরে রাখতে ডা. লিপিকে ভোট দিয়ে কিশোরগঞ্জবাসী নির্বাচিত করবেন।

তিনি আরও বলেন, ‘ওয়ান ইলেভেনের সময় আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে বলিষ্ট ভূমিকা রেখেছিল সৈয়দ আশরাফ। আজ আমরা যে গণতন্ত্র ফিরিয়ে এনেছি সেক্ষেত্রে সৈয়দ আশরাফেরও বলিষ্ঠ ভূমিকা ছিল।

অসম্ভব সোজা-সরল ছিল সে। ভাইদের হারিয়ে যে কজনকে ভাইয়ের মতো পেয়েছিলাম, সৈয়দ আশরাফ তাদের একজন। তার বাবা দেশের অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি ছিলেন, সৈয়দ আশরাফও দীর্ঘদিন মন্ত্রী ছিলেন। কিন্তু সবসময় অসম্ভব সৎ জীবনযাপন করেছে।’
Add Image