ইফতারে অতিরিক্ত ঠাণ্ডা পানি ডেকে আনতে পারে বড় বিপদ

প্রকাশিত: ৫:৫১ অপরাহ্ণ, মে ১০, ২০১৯ | আপডেট: ৫:৫১:অপরাহ্ণ, মে ১০, ২০১৯

তাপমাত্রা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে তার উপর রোজা রাখা। গরম আর সারা দিন পানি না খাওয়ায় শরীরের পানির চাহিদা বেড়ে যায়। তাই ইফতারে প্রথমেই প্রয়োজন হিম শীতল ঠাণ্ডা পানি। কিন্তু জানেন কি এই ভাবে ঠাণ্ডা পানি খাওয়ার অভ্যাস মারাত্মক বিপদ ডেকে আনতে পারে?

আসুন জেনে মাত্রাতিরিক্ত ঠাণ্ডা পানি পান করলে যেসব ভয়াবহ বিপদ হতে পারে।

শ্বাসনালীতে সমস্যা
বিশেষজ্ঞদের মতে, খাওয়ার পরে ঠাণ্ডা পানি পান করা ঠিক নয়। ঠাণ্ডা পানি শ্বাসনালীতে অতিরিক্ত পরিমাণে শ্লেষ্মার আস্তরণ তৈরি হয়, যা থেকে সংক্রমণের ঝুঁকি বেড়ে যায়।

রক্তনালী সংকুচিত
প্রতিনিয়ত মাত্রাতিরিক্ত ঠাণ্ডা পানি পান করলে রক্তনালী সংকুচিত হয়ে পড়ে ও স্বাভাবিক পরিপাক ক্রিয়াও বাধাপ্রাপ্ত হয়। ফলে হজমের মারাত্মক সমস্যা হতে পারে।

হজম সমস্যা
বিশেষজ্ঞদের মতে, ওয়ার্কআউটের পর ঠাণ্ডা পানির পরিবর্তে কুসুম গরম পানি পান করলে বেশি উপকার পাওয়া যাবে।

বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর ও শরীরচর্চা করার পর ঠাণ্ডা পানি একেবারেই পান করা যাবে না। কারণ ঘণ্টাখানেক শরীরচর্চা করার পর শরীরের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের চেয়ে অনেকটা বেড়ে যায়। এ সময় ঠাণ্ডা পানি পান করলে হজমের নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে।

ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে দাঁতে
ঠাণ্ডা পানি পান করলে ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে দাঁত। দন্ত চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞদের মতে, অতিরিক্ত ঠাণ্ডা পানি পান করলে দাঁতের ভেগাস স্নায়ুর ওপর ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে। ফলে আমাদের হৃদযন্ত্রের গতি অনেকটা কমে যেতে পারে।

তাই ঠাণ্ডা পানি পানের অভ্যাস থাকলে ত্যাগ করুন।

সূত্র: জিনিউজ।