ইমরানের ইনসুইংয়ে বেকায়দায় মোদি

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:০৪ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২, ২০১৮ | আপডেট: ৬:০৪:পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২, ২০১৮

নরেন্দ্র মোদি কখনো ক্রিকেট খেলেছেন? শোনা যায় না। ইমরান খান কিন্তু রাজনীতি করছেন ২২ বছর। ২২ গজের যুদ্ধে একসময় পাকিস্তানের কাছে পাত্তাই পেত না ভারত। তবে সাম্প্রতিক সময়ে বার বার হেরেছে ভারতের কাছে। শেষবার ২০১৭–তে মুখোমুখি হয়েছিল এই দু’দেশ। সেবার কিন্তু পাকিস্তানই ভারতকে টেক্কা দিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি ঘরে তোলে।

নিজের আমলে ইমরানের দল অবশ্য অনেকবারই হারিয়েছে ভারতকে। রাজনীতির আঙিনায় তথাকথিত ‘আন্ডারডগ’ পাকিস্তানের ক্যাপ্টেনের ইনসুইংয়ে মোদির উইকেট ছিটকে যায় যায় আর কী!

পাকিস্তানের নয়া কান্ডারি ইমরান খানের সরকার এক ধাক্কায় সাধারণ মানুষের জ্বালানি ডিজেলের দাম লিটারে ১৭ টাকা কমিয়ে দিয়েছে! আর এমন খবরেও পাল্টা শট নিতে ফেল মোদি সরকার।

পাকিস্তানের ঘোষণার দু’দিনের মাথায় ভারতে মহার্ঘতর ডিজেল। পেট্রোলও। সোমবার রাজধানীতে ডিজেলের দাম বেড়ে হয়েছে লিটারপ্রতি ৬৯ রুপি ৪৮ পয়সা। রেকর্ড করল পেট্রোলও। লিটারপ্রতি ৭৮ রুপ। কলকাতায় ডিজেল ৭২.৪০ রুপি, পেট্রোল ৮০.৯৩ রুপি।

আমেরিকা–চীনের বাণিজ্য সঙ্ঘাতে আন্তর্জাতিক আর্থিক বৃদ্ধি পঙ্গু করবে, এমন একটা আশঙ্কা থেকেই নাকি এই বৃদ্ধি। প্রশ্ন হলো, আন্তর্জাতিক বাজারের এই হাল সত্ত্বেও পাকিস্তান ডিজেলের দাম কমায় কী করে?

সংবাদ সম্মেলন ডেকে খোলসা করেছেন পাকিস্তানের পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী গুলাম সারওয়ার। জানিয়েছেন, সিন্ধ প্রদেশের সাঙ্গার জেলায় প্রাকৃতিক গ্যাসের সন্ধান পেয়েছে ‘পাকিস্তান পেট্রোলিয়াম লিমিটেড’। এখনই দৈনন্দিন ৯১ ব্যারেল উৎপাদন হবে। ৮৫ শতাংশ ডিজেলই আমদানি করে পাকিস্তান। মাত্র ১৫ শতাংশ আসে দেশের খনি থেকে। সেক্ষেত্রে সাঙ্গার এক উজ্জ্বল আবিষ্কার।

পাকিস্তানের পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী সারওয়ার জানিয়েছেন, ঘরোয়া উৎপাদন বাড়িয়ে আমদানি কমানো তাদের চ্যালেঞ্জ। মন্ত্রী জানিয়েছেন, ২০০৪ অবধি পাকিস্তানে পেট্রোলের চেয়ে ডিজেল সস্তা ছিল। তার পর ধাপে ধাপে এমন দাম বাড়তে থাকল যে পেট্রোলকে ছাপিয়ে গেল।

তার কথায়, ‘ডিজেল সাধারণ মানুষের জ্বালানি। যানবাহন, কৃষিকাজ, টিউবওয়েল, ট্রাক্টর— সবেতেই ডিজেলের ব্যবহার।’ জনমোহিনী সিদ্ধান্ত? তা হলেও, ডিজেলের দাম এক ধাক্কায় লিটারপ্রতি ১৭ টাকা করে কমিয়ে দেয়া সাহসী পদক্ষেপ, বলাই বাহুল্য। ইমরান বলেছিলেন, নয়া পাকিস্তান গড়বেন।

জোরালোভাবে তার পত্তন শুরু করে দিলেন। ইতিমধ্যে সরকারি বাসভবন ছেড়েছেন। পাকিস্তানি প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত প্রায় আড়াই শ’ আর্দালি। মাত্র দু’জনকে বহাল রেখেছেন ইমরান।

সদ্য ঘোষণা করেছেন, তার মন্ত্রিসভার সদস্যরা কেউ প্রথম শ্রেণির বিমান ভাড়া পাবেন না। ২২ গজের অসম সাহসী ক্যাপ্টেন রাজনীতির ময়দানেও লম্বা ইনিংস খেলতে চান।
নেদারল্যান্ডসের সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন না করলে ইসলামাবাদ অবরোধ করার হুমকি দিয়েছেন পাকিস্তানের বিক্ষোভকারীরা। মহানবী সা:কে নিয়ে কার্টুন প্রতিযোগিতা আয়োজনের প্রতিবাদে বিক্ষোভকারীরা সরকারের প্রতি এ দাবি জানায়।

পাকিস্তানের তেহরিক-ই লাব্বাইক পাকিস্তান (টিএলপি) গতকাল বৃহস্পতিবার লাহোরে তাদের বিক্ষোভের দ্বিতীয় দিন অতিবাহিত করে। বিক্ষোভকারী জনতা ধীরে ধীরে রাজধানীর দিকে অগ্রসর হচ্ছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইসলামাবাদে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর সদস্য বাড়ানো হয়েছে। কিছু প্রধান সড়কে তাদের বাধা দেয়ারও প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।

নেদারল্যান্ডসের ইসলামবিরোধী এমপি গিরট উইল্ডারস গত জুনে ইসলাম ধর্মের প্রবর্তক মহানবী মুহাম্মদ সা:কে নিয়ে আঁকা কার্টুন প্রতিযোগিতার ঘোষণা দেন। ১০ হাজার ডলার পুরস্কারের এ প্রতিযোগিতার ফল ঘোষণা হবে নভেম্বরে। এ পর্যন্ত এ প্রতিযোগিতায় ২০০ জন নাম লিখিয়েছে।

নেদারল্যান্ডসের দ্বিতীয় বৃহত্তম দলের নেতৃত্বে থাকা গিরট উইল্ডারসের বিরুদ্ধে আগে থেকেই ইসলামবিদ্বেষ ছড়ানোর অভিযোগ রয়েছে। এ কার্টুন প্রতিযোগিতা বন্ধের দাবিতেই পাকিস্তানজুড়ে বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

ইসলামে আল্লাহ, রাসূল মুহাম্মদ সা:সহ কোনো নবী প্রতিকৃতি আঁকা বা প্রতিমূর্তি তৈরি করা নিষেধ। টিএলপি দাবি করছে, তাদের এ প্রতিযোগিতা ব্ল্যাসফেমি কর্মকাণ্ড হিসেবে গণ্য। নেদারল্যান্ডস সরকার সরাসরি এ প্রতিযোগিতার সাথে যুক্ত নয়। কিন্তু মত প্রকাশের অধিকারের ভিত্তিতে তারা এ প্রতিযোগিতাকে বাধাও দিচ্ছে না। দেশটির প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুট এ প্রতিযোগিতাকে অসম্মানজনক বলে আখ্যা দিয়েছেন।