ইসরাইলের লেজার-গাইড বোমা দিয়ে ভারতে হামলার প্রস্তুতি!

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:৩৯ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯ | আপডেট: ৯:৩৯:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৯

বালাকোটে ফের সক্রিয় হয়ে উঠেছে জইশ শিবির। আধুনিক আগ্নেয়াস্ত্র ও ইসরাইলি বোমা নিয়ে তৈরি হচ্ছে জইশের অন্তত ৫০০ জঙ্গি। সোমবার সকালে চেন্নাইয়ে অফিসার্স ট্রেনিং একাডেমিতে সাংবাদিক সম্মেলনে এ কথা বলেন ভারতের সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত।

২৭ ফেব্রুয়ারি সার্জিক্যাল স্ট্রাইক চালিয়ে পাকিস্তানে ঢুকে বালাকোটের একাধিক জঙ্গি শিবির গুঁড়িয়ে দিয়েছিল ভারতীয় বিমানবাহিনী। সেই শিবির ফের সক্রিয় হয়েছে। ভারতীয় গোয়েন্দারা এমন খবর দিয়েছেন বলেই জানান সেনাপ্রধান।

তিনি বলেন, ওই শিবিরে বর্তমানে ৪০ জনকে প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে। তাদের ভারতে পাঠানোর ছক কষছে জঙ্গিরা।

জেনারেল রাওয়াত বলেন, বালাকোটকে পাকিস্তান আবারও সক্রিয় করে তুলেছে। এই ঘটনাই প্রমাণ করে যে, বালাকোট ভারতীয় বিমান হামলায় সেসময় ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছিল। এই ঘটনা এটাও তুলে ধরে যে, বালাকোটে ভারতীয় বিমানবাহিনীর অভিযান জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস করেছিল। কিন্তু এখন ওই জঙ্গিরা আবারও সেখানে ফিরে এসেছে।

এর আগে ভারতীয় একটি গণমাধ্যমে দাবি করা হয় যে, বালাকোটে ফের সক্রিয় হচ্ছে জঙ্গি শিবিরগুলো। এরপরেই ভারতের সেনাপ্রধান এমন মন্তব্য করলেন।

সরকারি সূত্রগুলো এনডিটিভিকে জানিয়েছে যে, প্রায় ১২৯ জন জইশ জঙ্গি ভারতে অনুপ্রবেশের জন্য প্রস্তুত রয়েছে। তারা ইসরায়েলের তৈরি লেজার-গাইড বোমা দিয়ে আঘাত হানার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে এবং সুযোগের অপেক্ষায় ওই শিবিরগুলোতে আত্মগোপন করে আছে।

২৬ ফেব্রুয়ারি, ভারতীয় বিমান বাহিনী ফ্রান্স থেকে কেনা প্রায় ১২টি মিরাজ-২০০০ বিমান নিয়ে পাকিস্তানের অভ্যন্তরে প্রবেশ করে এবং জঙ্গি শিবিরগুলোকে বোমা মেরে ধ্বংস করে। তার আগে ভারতের পুলওয়ামায় একটি আত্মঘাতী জঙ্গি হামলা চালানো হয়। জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামায় ওই হামলায় আধাসামরিক বাহিনীর (সিআরপিএফ) ৪০ সেনা নিহত হন।

বালাকোটে ধ্বংস হওয়া জঙ্গি শিবিরগুলোকে পুনরায় উজ্জিবীত করতে প্রতিবেশি দেশ পাকিস্তান সক্রিয় রয়েছে বলে অভিযোগ ভারতের। পাকিস্তানের মাটিতে কোনও জঙ্গিগোষ্ঠীকে আশ্রয় না দেওয়ার বিষয়ে আন্তর্জাতিক স্তরের কাছে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ইসলামাবাদ। তাবুও জঙ্গিদের মদদ দিয়েই চলেছে ইমরানের দেশ। এমনটাই বারবার অভিযোগ করেছে ভারত।