ইসলামের প্রতি ‘ঘৃণা’ উস্কে দিচ্ছেন ফরাসী প্রেসিডেন্ট : পাক প্রধানমন্ত্রী

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৮:০৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৫, ২০২০ | আপডেট: ৮:০৭:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৫, ২০২০
পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ফাইল ছবি

সম্প্রদি মহানবী মুহাম্মদ (স.) কে নিয়ে তৈরি কার্টুন শিক্ষার্থীদের সামনে প্রদর্শন করে খুন হন ফরাসী এক শিক্ষক। তারপর, নবী মুহাম্মদ (স.) এর সে কার্টুন দেশজুড়ে প্রদর্শন শুরু করে ফরাসী সরকার। সারাবিশ্বের মুসলানরা এর বিরোধিতা করে ক্ষোভ এবং নিন্দা জানাচ্ছেন। বয়কট করছেন ফরাসী পণ্য।

ফরাসী সরকারের ইসলাম বিদ্ধেষী কর্মকাণ্ডে প্রতিবাদে বিক্ষোভ চলছে বিভিন্ন দেশে। সামাজিক মাধ্যমে চলছে তীব্র সমালোচনা। ব্যবহারকারী তুলে ধরছেন আফ্রিকার দরিদ্র দেশগুলোতে ফরাসী আধিপত্যবাদের নৃশংস ইতিহাস।

এতে যোগ দিয়েছেন বিভিন্ন মুসলিম দেশের রাষ্ট্র প্রধান এবং সরকার প্রধানরাও।

এবার ইসলামের জন্য বিপজ্জনক ফরাসী প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর সমালোচনায় যোগ দিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ম্যাক্রোঁর বিরুদ্ধে ইসলামভীতি উৎসাহের অভিযোগ ‍তুলেছেন তিনি।

তিনি বলেন, একজন নেতার প্রধান বৈশিষ্ট হলো জাতিকে একত্রিত করা। তা না করে ম্যাক্রোঁ জাতিকে বিভ্রান্ত করছেন। সংকটকালে প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারতেন। মেরুকরণ, প্রান্তীকরণ, ঘৃণ্য বক্তব্য যেগুলো উগ্রবাদের দিকে নিয়ে যায় সেগুলো থেকে বিরত থাকতে পারতেন।

রোববার এ বিষয়ে একাধিক টুইট করেন ইমরান খান। বলেন, এটা খুবই দু:খজনক যে ইসলামকে আক্রমণ করে তিনি ইসলামের প্রতি ঘৃণা, অপছন্দ এবং ভীতিকে উৎসাহী করছেন। সন্ত্রাসী যারা সংঘাত ছড়িয়ে দিচ্ছে, শ্বেতাঙ্গশ্রেষ্ঠত্ব বাদী যারা বর্ণবাদ ছড়াচ্ছে বা নাৎসী আদর্শবাদীদের তিনি কিছু্ই বলেননি। শুধু মুসলামনদের লক্ষ্যবস্তু বানিয়েছে ফরাসী প্রেসিডেন্ট।

‘নবী মুহাম্মদের (স.) অবমাননাকর কার্টুন প্রদর্শনের মাধ্যমে মুসলমানদের ইচ্ছাকৃতভাবে উস্কানী দিচ্ছেন ম্যাক্রোঁ। একইভাবে উস্কে দিচ্ছেন তার জনগণকেও। যা অত্যন্ত দুঃখজনক।’ বলেন ইমরান খান।

ইমরান খান আরো বলেন, ইসলামকে আক্রমণ করে ম্যাক্রোঁ প্রমাণ করেছেন ইসলাম সম্পর্কে তার কোনো জ্ঞানই নেই। তার এ আচরণে ইউরোপসহ বিশ্বের কোটি কোটি মুসলমান কষ্ট পেয়েছে, ক্ষুব্ধ হয়েছে।

‘কোনো কিছু না জেনে প্রকাশ্যে বক্তব্য আরো ঘৃণা এবং ইসলামভীতি ছড়াবে। ফলাফল উগ্রবাদীর জন্ম নেবে। বিশ্বে আরো মেরুকরণ হবে। যা কখনোই কাম্য নয়। বলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী।