ইসেট ল্যাপটপ মেলার শেষদিনেও দর্শনার্থীদের বিপুল উৎসাহ

প্রকাশিত: ৮:৫২ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৩, ২০১৯ | আপডেট: ৮:৫২:অপরাহ্ণ, জুলাই ১৩, ২০১৯
ছবি: টিবিটি

শেষদিনেও জমজমাট ‘ইসেট ল্যাপটপ ফেয়ার ২০১৯’। দর্শনার্থীদের বিপুল উৎসাহ, সমাগম আর বেচাবিক্রির মধ্যে তৃতীয়দিনের মেলা চলছে। সকাল থেকেই ভিড় লক্ষ্য করা গেলেও বিকেলের শুরুতেই ভিড় বেড়ে যায়। জমে উঠে বেচাবিক্রিও। ক্রেতাদের আগ্রহের ভিত্তিতে শেষদিনে মেলার সময় এক ঘণ্টা বাড়ানো হয়েছে।

এর আগে শুক্রবার এবং আজ শনিবার ল্যাপটপ কিনে বেশ কয়েকজন ক্রেতা পেয়েছেন স্ক্র্যাচ কার্ডে ২০ হাজার টাকা ক্যাশব্যাক, অনেকে পেয়েছেন নানা ধরনের উপহার। সেই তালিকাতে বাইসাইকেল, টিভি, এসিসহ আরো অনেক পুরস্কার রয়েছে। তাই শেষদিনের মেলাতে অনেকেই পছন্দের ল্যাপটপ কিনতে ভিড় করছেন। ক্রেতাদের আগ্রহের ভিত্তিতে শেষদিনের মেলার সময় বাড়ানো হয়েছে এক ঘণ্টা।

মেলাতে অংশ নেয়া বিভিন্ন স্টল ও প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা জানান, আজ খুব ভালো বেচা-বিক্রি হচ্ছে। শেষ সময়ে বিক্রির পরিমাণ আরো বাড়বে। গতকাল শুক্রবারও তারা ভালো বেচাবিক্রি করেছেন। সেই ধারাবাহিকতায় আজও অনেক ল্যাপটপ বিক্রি হচ্ছে।

মেলাতে ল্যাপটপ কিনছেন তাহমিনা মিমি। তিনি বলেন, মেলাতে ভিড় থাকলেও পরিবেশ খুব সুন্দর। আইটি পণ্যের মেলা এমনই স্মার্ট হওয়া দরকার। আমি ক্যাশ টাকা নিয়ে আসিনি। চিন্তা করছিলাম ক্রেডিট কার্ড দিয়ে কিনতে পারব কিনা। তবে সেই চিন্তা আমার দূর হয়েছে মেলায় এসে। কারণ জানতে পারলাম মেলাতে বিভিন্ন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডের কেনা যাবে ল্যাপটপ। আবার ল্যাপটপের সাথেও রয়েছে নানা ধরনের উপহার।

এক্সপো মেকারের এজিএম সিরাজুল ইসলাম সার্থক বলেন, গত দুইদিন ক্রেতাদের সমাগম বেশ ভালো ছিল। আজ সকাল থেকেও প্রচুর মানুষ মেলাতে আসছে। বিক্রিও হচ্ছে বেশ। এবার ল্যাপটপ মেলার ২১তম প্রদশর্নী হচ্ছে। প্রতিবারই নতুন এবং আপডেট মডেলের ল্যাপটপ থাকে। দামের ব্যাপারটিও ক্রয়ক্ষমতার মধ্যেই আছে। এ ছাড়া, বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে হয়তো আরো ক্রেতার ভিড় বাড়বে। তবে পূর্বের অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি শেষদিনেও প্রচুর বেচাবিক্রি হয়।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মেলা শুরু হয়েছে নির্ধারিত সময় সকাল ১০টায়। সকাল থেকেই মেলায় দর্শনার্থী ও ক্রেতাদের ভিড় ছিল স্টলগুলোতে। ছাড়, অফার ও নানা ধরনের উপহারের পসরা সাজিয়েছে ব্র্যান্ডগুলো ক্রেতাদের জন্য। শেষ বেলায় হতো আরো অনেক ছাড়, অফার ও উপহারের ঘোষণা দিবে ব্র্যান্ডগুলো।

শনিবার সকাল থেকে আবহাওয়া ভালো থাকার কারণে দিনের শুরু থেকেই মেলা প্রাঙ্গনে টিকিট বুথের সামনে লাইন ধরে টিকিট কিনতে দেখা গেছে। বেচা বিক্রি হচ্ছে বেশ। মেলায় পাওয়া যাচ্ছে ট্যাবলেট কম্পিউটার, ইন্টারনেট সিকিউরিটি পণ্য ও ল্যাপটপের আনুসঙ্গিক গ্যাজেট। বিশেষ ছাড়, উপহারের পাশাপাশি মেলায় বেশ কয়েকটি নতুন মডেলের ল্যাপটপের মোড়কও উন্মোচন করা হয়েছে।

এক্সপো মেকারের আয়োজনে এটি দেশের ২১তম ল্যাপটপ প্রদর্শনী। ল্যাপটপ ও ট্যাবলেট নিয়ে দেশের সবচেয়ে বড় এই প্রদর্শনী ও বিকিকিনির আয়োজনটি আজ রাত ৮টা পর্যন্ত। মেলায় ডেল, আসুস, এইচপি, লেনোভো, ওয়ালটন, আইলাইফ, চুই ব্র্যান্ডের ল্যাপটপ পাওয়া যাচ্ছে। মেলা থেকে ইসেট ও ক্যাসপারেস্কির অ্যান্টিভাইরাস-সিকিউরিটি পণ্যসহ অ্যাক্সেসরিজও কিনতে পারবেন ক্রেতারা।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে মেলা উদ্বোধন করেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

আয়োজন সম্পর্কে এক্সপো মেকারের কৌশলগত পরিকল্পনাকারী মুহম্মদ খান বলেন, আগের সব মেলাতে শিক্ষার্থী, তরুণ প্রজš§সহ সবার অংশগ্রহণ ছিল প্রত্যাশার চেয়েও বেশি। আশা করছি, এবারের মেলা আগের রেকর্ড ছাড়িয়ে যাবে। ল্যাপটপের পাশাপাশি মেলায় সর্বশেষ প্রযুক্তি ও ডিজাইনের ডিভাইস নিয়ে হাজির হয়েছে অংশগ্রহনকারী প্রতিষ্ঠানগুলো। জনপ্রিয় ব্র্যান্ডগুলোর সর্বশেষ মডেলের ল্যাপটপের পাশাপাশি আনুষাঙ্গিক যন্ত্রাংশও পাওয়া যাচ্ছে। সব ধরনের পণ্যেই পাওয়া যাচ্ছে বিশেষ ছাড় এবং সঙ্গে উপহার।

এবারের আয়োজনে ১টি টাইটেল স্পন্সর প্যাভিলিয়ন, ৪টি স্পন্সর প্যাভিলিয়ন, ২৬টি মিনি প্যাভিলিয়ন ও ১০টি স্টলে দেশ-বিদেশের শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা ও বিপণনকারী প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের সর্বশেষ প্রযুক্তির পণ্য প্রদর্শন ও বিক্রি করছে।

মেলার প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে রয়েছে ইসেট। সহ-পৃষ্ঠপোষক হিসেবে রয়েছে আসুস, ডেল, এইচপি, লেনোভো। সাইবার সিকিউরিট পার্টনার হিসেবে যুক্ত হয়েছে ক্যাসপারস্কি। এ ছাড়াও, পার্টনার হিসেবে রয়েছে তথ্যপ্রযুক্তি ও টেলিকম বিষয়ক বিশেষায়িত নিউজ পোর্টাল টেকশহরডটকম এবং এডুমেকার।