ঈদের আগেই রাস্তা শতভাগ চলাচলের উপযোগী করা হবে: চসিক মেয়র

এস. এম. আকাশ এস. এম. আকাশ

ব্যুরো চিফ,চট্টগ্রাম

প্রকাশিত: ৬:১০ অপরাহ্ণ, মে ২২, ২০১৯ | আপডেট: ৬:১০:অপরাহ্ণ, মে ২২, ২০১৯
ছবি: টিবিটি

নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক পোর্ট কানেকটিং ও আগ্রাবাদ এক্সেস রোডের কাপেটিং লেয়ারের কাজ শুরু হয়েছে। আজ বুধবার সকালে পোর্ট কানেকটিংস্থ নিমতলা এবং পরে পোর্ট কানেকটিং জংশনে আগ্রাবাদ এক্সেস রোর্ডের কাপেটিং এর কাজ উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ.জ.ম.নাছির উদ্দীন।

এই সময় উপস্থিত ছিলেন চসিক প্রধান প্রকৌশলী লেঃ কর্ণেল মহিউদ্দিন আহমদ,অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম মানিক, তত্ত্ববধায়ক প্রকৌশলী সুদীপ বসাক, তত্ত্ববধায়ক প্রকৌশলী ঝুলুন কুমার দাশ, নিবার্হী প্রকৌশলী আবু সাদাত মোহাম্মদ তৈয়ব,নিবার্হী প্রকৌশলী বিপ্লব দাশ, অসীম বড়–য়াসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। উদ্বোধন উপলক্ষে এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে সিটি মেয়র বলেন এই দু“টি সড়ক নগরীর জনবহুল এলাকা ও অত্যন্ত ব্যস্ততম সড়ক। এই রোড দু“টিতে উন্নয়ন কাজ চলাকালীন সময়ে অত্র এলাকার বাসিন্দারা অনেক কষ্ঠ সহ্য করেছেন,তজ্জন্য সিটি মেয়র তাদের প্রতি দুঃখ প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন চট্টগ্রাম বন্দরের সাথে এই সড়ক দু“টি সরাসরি সংযুক্ত। প্রতিদিন প্রায় ১০-১২ হাজার গাড়ী এই সড়ক দু“টি দিয়ে চলাচল করে।ব্যস্ততম এই সড়ক দু“টির কাজের গুণগত মান উন্নততর ভাবে করা হচ্ছে। এই কাজের গুণগত মান দেখভাল করছেন জাইকার বিশেষজ্ঞ দল।সড়ক দু“টিতে প্রায় সাড়ে ৯ ইঞ্চি পুরু এবং ৩টি ফেইসে সড়ক দু“টি কার্পেটিং করা হবে।

তিনি বলেন আসন্ন ঈদের আগেই পোর্ট কানেকটিং রোডের নিমতলা থেকে তাসফিয়া পর্যন্ত রাস্তার পূর্বাংশ এবং বেপারী পাড়া থেকে এক্সেস রোর্ডের দক্ষিণাংশ মিডিয়ান ব্লকসহ কাপেটিং লেয়ারের কাজ শতভাগ সম্পন্ন করে জনচলাচলের উপযোগী করা হবে। এই লক্ষে রাস্তা দু“টিতে গাড়ী চলাচলের উপযোগী এবং বর্যার মৌসুমে জনভোগান্তি লাঘবে নিরলসভাবে কাজ করছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন। সিটি মেয়র আরো বলেন,অনেক প্রতিকুলতা ও বাধা অতিক্রম করে উভয় পার্শ্বেই আরসিটি ড্রেইন,৫টি কালভার্ট ও উভয় পার্শ্বে ওয়াটর মেকাডাম মিক্স এর কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

এই কাজটি জাইকার অর্থায়নে নির্মিত হচ্ছে বিধায় ডিজাইন,ড্রাইনিং,ল্যাব পরীক্ষা ইত্যাদি সবকিছু মেনে কাজ চালিয়ে যাতে হচ্ছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। মেয়র বলেন জাইকার অর্থায়নে নগরীর অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সড়কের ৫ দশমিক৭কিঃমিটার দীর্ঘ এবং ১২০ ফুট প্রশস্থ নিমতলা থেকে তাসফিয়া পর্যন্ত ১শত কোটি টাকা এবং ২দশমিক ৩৭৮কিলোমিটার দীর্ঘ ১২০ ফুট প্রশস্থ বাদামতলী থেকে বড়পুল পর্যন্ত আগ্রাবাদ এক্সেস রোড ৫১কোটি টাকা ব্যয়ে উন্নয়ন কাজ চলছে।

এরমধ্যে হাজীপাড়ার মুখে আরসিসি পাকিংও রয়েছে। এই প্রকল্পে রাস্তার দু”পাশে ২মিটার প্রশস্থ আরসিটি ড্রেন ও ফুটপাত নিমাণের কাজ শেষ হয়েছে। আর রাস্তার মাঝখানে আড়াই ফুট প্রশস্থ বিশিষ্ট মিডিয়ান নির্মাণ ও এলইডি আলোকায়ন কাজ চলমান রয়েছে। এই প্রসংগে মেয়র আরো বলেন আগ্রাবাদ এক্সেস রোড ও পোর্ট কানেকটিং রোডকে দৃষ্টিনন্দন রুপে সাজানো হবে।

ইতোমধ্যে পিসি রোড ও আগ্রাবাদ এক্সেস রোডের নাম জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং আমাদের প্রয়াত নেতা সাবেক মেয়র আলহাজ্ব এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী নামে নামকরণ করা হয়েছে। যা চসিকের ৪৬তম সাধারণ সভায় পাস করা হয়েছে। তিনি বলেন এই সড়ক দু“টির কাজ দ্রæত সময়ের মধ্যে সম্পন্ন হবে বলে তিনি উপস্থিত জনসাধারণকে জানান।