ঈদ ছুটিতে ক্রিকেটারদের চলাফেরায় ‘লাগাম টেনে’ বিসিবির নির্দেশনা

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:১১ অপরাহ্ণ, মে ১১, ২০২১ | আপডেট: ৯:১১:অপরাহ্ণ, মে ১১, ২০২১

ঈদুল ফিতরের ঠিক পরেই ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। ফলে দেশে চলমান করোনা মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ের বিষয়টি বিবেচনা করে ঈদ ছুটিতে ক্রিকেটাদের নিরাপদ রাখার জন্য বেশ কিছু বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

সোমবার (১১ মে) থেকে শুরু হয়েছে ক্রিকেটারতের ঈদুল-উল-ফিতরের ছুটি, যা শেষ হবে ১৭ মে। সপ্তাহব্যাপী বিরতির সময় প্রাথমিক স্কোয়াডে থাকা খেলোয়াড়দের সতর্কতা অবলম্বন করার জন্য বিসিবির মেডিকেল বিভাগ নির্দেশ দিয়েছে। করোনা থেকে রক্ষা পেতে বিসিবির এ বিশেষ নির্দেশনা ক্রিকেটারদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

সফরকারি শ্রীলংকার বিপক্ষে তিনটি ওয়ানডে সামনে রেখে গতকাল ঈদের আগে শেষ দিনের অনুশীলন সেরেছেন মুশফিক-লিটনরা। আজ থেকে শুরু হয়েছে তাদের ঈদ-উল ফিতরের ছুটি, যা শেষ হবে ১৭ মে।

এই ৭ দিন প্রাথমিক দলে ডাক পাওয়াদের সর্বোচ্চ সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছে বিসিবি’র মেডিকেল বিভাগ। কেউ যেন ভুল করেও জনসমাগমে না যান এবং সামাজিক দূরত্বসহ করোনাকালে করণীয় সঠিকভাবে মেনে চলেন তা পই পই করে বলে দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (১১ মে) সারাবাংলাকে এতথ্য দিলেন বিসিবি’র প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী।

তিনি জানালেন, ‘আমরা দলের প্রতিটি ক্রিকেটারকে নির্দেশ দিয়েছি যেন ছুটির সময় তারা সতর্ক থাকেন। চলাচল, সামাজিকতা প্রতিটি ক্ষেত্রেই তা তাদের মেনে চলতে বলা হয়েছে, যেহেতু ঈদের পরেই সিরিজ। আমাদের মেডিকেল বিভাগ থেকে তাদের বলা হয়েছে যেন জন সমাগমে তারা একদমই না যান। এছাড়াও করোনামুক্ত থাকতে যা যা করণীয় সবই তাদের করতে বলা হয়েছে।’

১৭ মে শেষ হবে ঈদ-উল ফিতরের ছুটি। ১৮ মে থেকে শুরু হবে ঈদ পরবর্তী অনুশীলন। তার আগে প্রাথমিক দলে ডাক পাওয়াদের দুইবার করোনা পরীক্ষার মধ্য দিয়ে যেতে হবে জানালেন দেবশীষ চৌধুরী।

‘ঈদের পরের অনুশীলন শুরু হবে ১৮ মে। এর আগে প্রাথমিক দলে ডাক পাওয়াদের দুইবার করোনা পরীক্ষা হবে। যারা নেগেটিভ হবেন তাদের বায়ো বাবলে নিয়ে অনুশীলন শুরু হবে।’

বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের ওয়ানডে খেলতে ১৬ মে ঢাকায় পা রাখবে শ্রীলংকান ক্রিকেট দল। ২৩ মে মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে। একই ভেন্যুতে ২৫ মে দ্বিতীয় ও ২৮ মে অনুষ্ঠিত হবে তৃতীয় শেষ ওয়ানডে। প্রতিটি ম্যাচেই দিবা-রাত্রির।