এই সঙ্কটের মাঝেও ৯০ বছর বয়সী মা’কে বের করে দিল ছয় ছেলে

প্রকাশিত: ৮:৩৪ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২, ২০২০ | আপডেট: ৮:৩৪:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২, ২০২০
ছেলেরা বাড়ি থেকে বের করে দেয়ার পর বৃদ্ধাকে দেখতে যান বড়াইগ্রাম উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারি। ছবি: সংগৃহীত

সন্তানদের জন্য নিজের জীবন বিলিয়ে দেন মা। সেই সন্তানরাই যখন দুর্ব্যবহার করে, তখন তো আর মায়ের দুঃখের শেষ থাকে না। তবে নাটোরে যে ঘটনাটি ঘটেছে, তাতে সময়ের বিবেচনায় পূর্বের সব ঘটনাকে টপকে গেছে। এই করোনা মহামারি সঙ্কটের মধ্যেও ৯০ বছর বয়সী মা’কে বের করে দিয়েছে তারই ৬ ছেলে সন্তান।

বুঞ্জনী বেওয়া’র বর্তমান বয়স ৯০ বছর। বয়সের ভারে চলতে পারেন না। বার্ধক্য গ্রাস করে ফেলেছে। জীবনের শেষ প্রান্তে এসে বার্ধক্যের কাছে ধরাশায়ী তিনি। বৃদ্ধার ছয় ছেলে কমবেশি সবাই প্রতিষ্ঠিত।

এই বয়সে যেখানে নাতি-নাতনীকে নিয়ে সময় কাটানোর কথা, তখন ছেলেরা তাকে বাড়ী থেকে বের করে দিল। এক মা’কে ভরণ পোষণ দেওয়ার মত সক্ষমতা আর মনমানসিকতা নেই ওই ছয় ছেলের। বউয়ের কথায় ছয় ছেলেই বৃদ্ধা মা’কে নানা অপবাদ দিয়ে এভাবেই বাড়ী থেকে বের করে দেয়।

এমনই এক হৃদয় বিদারক ঘটনা ঘটেছে নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার গড়মাটি গ্রামে।

ঘটনাটি অবহিত হওয়ার পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আনোয়ার পারভেজ এ বিষয়ের সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত ওই বৃদ্ধাকে তার ছেলে মতিউর রহমানের বাড়ীতে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আনোয়ার পারভেজ জানান, বিষয়টি নিয়ে মীমাংসার জন্য আগামী রবিবার বৃদ্ধার ছয় ছেলে ও তাদের স্ত্রীদের ডাকা হয়েছে। নির্দেশ অমান্য করলে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।