একটু বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতার কবলে পড়ে ভূরুঙ্গামারীর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

মনিরুজ্জামান মনির মনিরুজ্জামান মনির

ভূরুঙ্গামারী উপজেলা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৬:২৪ অপরাহ্ণ, মে ৩১, ২০২০ | আপডেট: ৬:২৪:অপরাহ্ণ, মে ৩১, ২০২০

ভূরুঙ্গামারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি ঃ কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীর একটি বিদ্যালয়ে বেশকিছু দিন যাবত জলাবদ্ধতার সমস্যা বিরাজ করছে। এতে বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি পোহাতে হয়।
ভূরুঙ্গামারীর তিলাই উচ্চ বিদ্যালয় মাঠের পুরোটাই সামান্য বৃষ্টি হলে পানিতে তলিয়ে যায়। রোববার সকালে বৃষ্টির পর বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তাঁর ফেসবুক আইডিতে তলিয়ে যাওয়া মাঠের ভিডিও চিত্র পোস্ট করে লেখেন “একটু বৃষ্টি হলেই তিলাই উচ্চ বিদ্যালয় মাঠের কোথাও তিন ফুট আবার কোথাও চার ফুট পানি জমে।
তিলাই ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক প্রদত্ত পানি নিষ্কাশন ব্রীজের সাথে যুক্ত পাইপটি পাশ্ববর্তী জমির মালিক কর্তৃক বন্ধ করে দেওয়ায় পানি আর বের হচ্ছে না।”
প্রধান শিক্ষক আমজাদ হোসেন জানান,“স্থানীয় মেম্বার, চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিষয়টি লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। জলাবদ্ধতা নিরসনে এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা পরিলক্ষিত হয়নি। এমতাবস্থায় শিক্ষর্থীরা মাঠ ব্যবহার তো দূরের কথা শ্রেণি কক্ষেও ঢুকতে পারবে না।” তিনি এ বিষয়ে প্রশাসনের সু-দৃষ্টি কামনা করছেন।
জানা গেছে, বিদ্যালয় মাঠ থেকে নেমে যাওয়া পানির তোড়ে জমির ফসল নষ্ট হওয়া থেকে বাঁচাতে ব্রীজের মুখ বন্ধ করে দিয়েছে ইতিপূর্বে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া জমির মালিকরা। তাঁরা তাদের জমির উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হতে দিতে ইচ্ছুক নন। পানি নিষ্কাশনের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা না থাকাই জলাবদ্ধতার মূল কারণ। জলাবদ্ধতার কারণে মাঠ ও তৎসংলগ্ন পথ পানিতে ডুবে যাওয়ায় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি পোহাতে হয়। মাঠের দক্ষিণ পাশে একটি নিষ্কাশন নালা এবং মাটি ভরাট করে মাঠ উঁচু করা হলে জলাবদ্ধতা নিরসন সম্ভব। দ্রæত জলাবদ্ধতা নিরসনে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী শিক্ষক-শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও এলাকাবাসীর।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফিরুজুল ইসলাম জানান, দ্রæত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।