‘এক ঘুষিতে তোমার ক্যারিয়ার শেষ করে দেব’!

টিবিটি টিবিটি

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:২৬ অপরাহ্ণ, মে ২৮, ২০২০ | আপডেট: ৬:৪১:অপরাহ্ণ, মে ২৮, ২০২০

স্লেজিংয়ের জন্য অজি ক্রিকেটাররা বরাবরই বিখ্যাত। তবে এই স্লেজিং করেই একবার বিপদে পড়েছিলেন সফলতম অজি অধিনায়ক স্টিভ ওয়াহ। এক ঘুষিতে স্টিভ ওয়াহর ক্যারিয়ার শেষ করে দেওয়াহর হুমকি দিয়েছিলেন কিংবদন্তি ক্যারিবিয়ান পেসার কার্টলি অ্যামব্রোজ। ১৫ বছর আগে ত্রিনিদাদে অনুষ্ঠিত ওয়েস্ট ইন্ডিজ-অস্ট্রেলিয়া টেস্ট ম্যাচে একের পর এক ভয়ংকর বাউন্সার দিয়ে যাওয়া অ্যামব্রোজকে শেষে শান্ত করেন অধিনায়ক রিচি রিচার্ডসন। কিন্তু কি হয়েছিল সেদিন?

১৯৯৫, ত্রিনিদাদ টেস্ট। মাঠে এমনিতে কখনো বাগযুদ্ধ করতে দেখা যায়নি অ্যামব্রোসকে। কিন্তু সেদিন ওয়াহকে এক হাত দেখে নিতে চেয়েছিলেন ক্যারিবিয়ান পেস কিংবদন্তি। শেষ পর্যন্ত অধিনায়ক রিচি রিচার্ডসন এসে টেনে নিয়ে যান অ্যামব্রোসকে। এত দিন পর সে ঘটনা স্মরণ করলেন ক্যারিবীয়ান কিংবদন্তি।

স্কাই স্পোর্টস পডকাস্টে মাইকেল আথারটন ও নাসের হুসেইনের সঙ্গে পেস বোলিং নিয়ে অনেক কথাই বলেছেন ৯৮ টেস্টে ৪০৫ উইকেট নেওয়া সাবেক এই পেসার। অহর্নিশ স্লেজিং করা বোলাররা আদতে ভালো বোলার না বলেই মনে করেন অ্যামব্রোস। ঘণ্টায় ৯০ মাইল গতি আর ভালো লাইন-লেংথ থাকলে স্লেজিং লাগে না, মনে করেন তিনি।

ওয়াহর সঙ্গে সেই বাগযুদ্ধ নিয়ে অ্যামব্রোস বলেন, ‌’ওয়াহর সঙ্গে আমার আগে থেকেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছিল। সে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী। সম্মানও করি। কিন্তু ওই ম্যাচে সে এমন কিছু বলেছিল যা ভালো লাগেনি। ম্যাচের উত্তেজনায় এমন অনেক কিছুই বলা হয়। তখন পাত্তা দিইনি। বিরতির পর জিজ্ঞেস করলাম, তুমি কি এমন কিছু বলেছ, আমাকে? সে হ্যাঁ-ও বলেনি না-ও বলেনি। শুধু বলল, আমার যা খুশি বলতে পারি, যেটা আমি সম্মতি হিসেবেই ধরে নিই।এরপর মনে হলো কিছু বলা উচিত।’

অ্যামব্রোস বলেছিলেন, ‌’আমার ক্রিকেট ক্যারিয়ার হয়তো এখানেই শেষ হয়ে যেতে পারে। তাতে কিছু যায় আসে না। কিন্তু তোমার ক্যারিয়ারও এখানেই শেষ হবে। তোমার খুলি উড়িয়ে দেব, আর খেলতে পারবে না।’

সেই ঘটনার পর অ্যামব্রোসের সঙ্গে ওয়াহর বেশ কয়েকবার দেখা হয়। কিন্তু ওই ঘটনা নিয়ে দুজনের মধ্যে আর কথা হয়নি। অ্যামব্রোস এমনিতে স্লেজিং অপছন্দ করতেন। তাঁর মতে, পেসারদের আগ্রাসী মনোভাব শেখানো যায় না। এটা ভেতর থেকেই গড়ে ওঠে।