এক মাসে আরও ৫ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগ দেবে স্বাস্থ্য বিভাগ

প্রকাশিত: ১০:৫১ পূর্বাহ্ণ, মে ২৯, ২০২০ | আপডেট: ১০:৫১:পূর্বাহ্ণ, মে ২৯, ২০২০

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে আরো ৫ হাজার স্বাস্থ্যকর্মীর নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে। করোনার এই দুর্যোগ মোকবেলায় এ নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

নতুন এ নিয়োগে ২ হাজার চিকিৎসক এবং ৩ হাজার মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট, টেকনিশিয়ান ও রেডিওগ্রাফার দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় যোগ হচ্ছেন। এর আগেও চলতি মাসের ৪ তারিখে ২ হাজার চিকিৎসক এবং ৭ তারিখে ৫ হাজার ৫৪ নার্স নিয়োগ দেয় সরকার।

নতুন নিয়োগের মাধ্যমে মাত্র এক মাসের মধ্যে দেশে রেকর্ড সংখ্যক ১২ হাজার স্বাস্থ্যকর্মীর নিয়োগ হবে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, বাংলাদেশে আগে একসঙ্গে এত বেশি সংখ্যক স্বাস্থ্যকর্মী কখনো নিয়োগ হয়নি। শুধুমাত্র করোনা পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করেই সরকার এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করছে।

করোনা ভাইরাস সংকট মোকাবিলায় মে মাসেই রেকর্ড সময়ে দুই হাজার চিকিৎসক এবং ৫ হাজার ৫৪ জন নার্স নিয়োগ দেয় আওয়ামী লীগ সরকার। আর এখন আরো দুই হাজার ডাক্তার, এক হাজার ২০০ মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট, এক হাজার ৬৫০ মেডিক্যাল টেকনিশিয়ান ও ১৫০ জন রেডিওগ্রাফার নিয়োগ দেওয়ার প্রক্রিয়া চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে।

দেশের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে সরকার ৬৬ দিনের সাধারণ ছুটি শেষে সীমিত পরিসরে অফিস ও গণপরিবহন চালুর সিদ্ধান্ত দিয়েছে।

একদিকে দেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতির চাকা সচল রাখা, অন্যদিকে করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতেই স্বাস্থ্যসেবায় ডাক্তারসহ স্বাস্থ্যকর্মী বাড়ানোর মতো যুগান্তকারী পদক্ষেপ নিয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

৩৯তম বিসিএস থেকে ক্যাডার পদ না পাওয়াদের মধ্য থেকে দুই হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দিয়ে করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে তাদের পদায়ন করা হয়েছিল। তবে নতুন করে চিকিৎসকসহ স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগ প্রক্রিয়া কীভাবে সম্পন্ন হবে তা নিয়ে দ্রুত সিদ্ধান্ত হবে।

এসব নিয়োগ প্রক্রিয়া দ্রুত শেষ করতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, সরকারি কর্ম কমিশন এবং অর্থ বিভাগ সমন্বয় করে কাজ করবে বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।