এবার প্রশিক্ষণে গিয়েও মাদক দিয়ে ফাঁসানোর হুমকি, এএসপি বহিষ্কার

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:০০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৭, ২০১৯ | আপডেট: ১০:০০:অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৭, ২০১৯

বিসিএস ক্যাডারদের বিভিন্ন ব্যাচের ৬ মাসব্যাপী বুনিয়াদী প্রশিক্ষণে গিয়ে আনসার সদস্যকে মাদক দিয়ে ফাঁসানোর হুমকিসহ শৃংখলা ভঙ্গের দায়ে বগুড়ার শিবগঞ্জ সার্কেলের এএসপি কুদরত-ই-খুদাকে প্রশিক্ষণ থেকে এক বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে।

পল্লী উন্নয়ন একাডেমি (আরডিএ) বগুড়ার মহাপরিচালক তাকে এক বছরের জন্য বহিষ্কারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তবে এএসপি শুভ দাবি করেছেন, বাবা অসুস্থ তাই অব্যাহতি নিয়েছেন; কেউ তাকে বহিষ্কার করেনি।

বগুড়া আরডিএর নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, গত মার্চে বিসিএস ক্যাডার বিভিন্ন ব্যাচের ৬ মাসব্যাপী বুনিয়াদী প্রশিক্ষণ শুরু হয়। আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর প্রশিক্ষণের সমাপনী হওয়ার কথা। সেখানে অন্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে বগুড়ার শিবগঞ্জ সার্কেলের এএসসি ৩৪তম বিসিএস ক্যাডার কুদরত-ই-খুদা শুভ অংশ নেন।

এ প্রশিক্ষণ চলাকালে তার বিরুদ্ধে শৃংখলা ভঙ্গের নানা অভিযোগ ওঠে। দেরিতে আসার ব্যাপারে প্রশ্ন করলে তিনি এক আনসার সদস্যকে গালিগালাজ, মাদক দিয়ে ধরিয়ে দেয়ার হুমকি ও তদবিরের মাধ্যকে তাকে বদলি করান। এরপর তার বাড়িতেও পুলিশ পাঠানো হয়। তার বিরুদ্ধে কর্মচারীদের সঙ্গে অসদাচরণের অভিযোগ ওঠে।

সূত্রটি আরও জানায়, এএসপি শুভর বিরুদ্ধে শৃংখলা ভঙ্গের ৫টি অভিযোগ ওঠায় শৃংখলা কমিটি ঈদের আগে তাকে এক বছরের জন্য প্রশিক্ষণ থেকে বহিষ্কার করে।

আরডিএ বগুড়ার মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) আমিনুল ইসলাম এর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বুনিয়াদী প্রশিক্ষণে অংশ নেয়া এএসপি শুভর বিরুদ্ধে ৫টি সুনির্দিষ্ট শৃংখলা ভঙ্গের অভিযোগ আছে। ৩ সদস্যের শৃংখলা কমিটির সুপারিশে তাকে এক বছরের জন্য প্রশিক্ষণ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় শাস্তির ব্যবস্থা নেয়া যেত। তবে অন্য প্রশিক্ষণার্থীদের সতর্ক করতে তাকে গুরু অপরাধে লঘু শাস্তি দেয়া হয়েছে। তবে তিনি বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষক কেন্দ্রে এ শাস্তির বিরুদ্ধে আপিল করতে পারবেন।

তিনি আরও বলেন, এএসপি শুভর বিরুদ্ধে বগুড়া পুলিশ লাইন্সে এক ব্যবসায়ীকে পেটানোর অভিযোগও রয়েছে।

বগুড়ায় বিনা অপরাধে আহম্মেদ সাব্বির নামে এক সরবরাহকারীকে পুলিশ লাইন্সের অফিসার্স মেসে ডেকে নির্দয়ভাবে লাঠিপেটা করেন।

এ ছাড়া এএসপি শুভর বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসকের গাড়ির চালককেও মারপিটের অভিযোগ ওঠে।

বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা জানান, এএসপি শুভকে বুনিয়াদী প্রশিক্ষণ থেকে বহিষ্কারের কথা শুনেছেন।

তিনি বলেন, এটা প্রশিক্ষণ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। ব্যবসায়ী আহম্মেদ সাব্বিরকে মারপিটের ঘটনায় এএসপি শুভর বিরুদ্ধে কোনো শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে কী না এমন প্রশ্নের উত্তরে পুলিশ সুপার বলেন, তদন্ত কমিটির রিপোর্ট পুলিশ হেডকোয়ার্টারে পাঠানো হয়েছে।