ওসির প্রকাশ্যে ধূমপান, ফেসবুকে ভাইরাল

প্রকাশিত: ৮:৫৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ৩০, ২০২০ | আপডেট: ৮:৫৮:অপরাহ্ণ, জুলাই ৩০, ২০২০
ছবি: সংগৃহীত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে থানার ভিতর নিজ কক্ষে বসে প্রকাশ্যে ধূমপান করে সমালোচনার মুখে পড়েছেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল আহমেদ।

গত বুধবার (২৯ জুলাই) বিকালে ওসির ধূমপানের দুটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হলে ওসি নিজে যেমন বেকায়দায় পড়েন, তেমনিভাবে বিব্রত হন জেলা পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তারা। ফেসবুকে ওসিকে নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, লাখো মানুষের উপস্থিতিতে সরাইলের বেড়তলায় মাওলানা জুবায়ের আহমেদ আনছারীর জানাজার ঘটনায় থাকার তৎকালীন ওসি শাহাদাত হোসেন টিটুকে প্রত্যাহার করা হলে গত ১৯ এপ্রিল পুলিশ পরিদর্শক নাজমুল আহমেদ সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হিসেবে যোগদান করেন। গত জুন মাসে উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ.এস.এম মোছার উপস্থিতিতে ওসি নাজমুল আহমেদের বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ীদের প্রকাশ্যে মদদ দেওয়ার অভিযোগ তোলেন উপজেলা চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন ঠাকুর। কিন্তু ওসি উপজেলা চেয়ারম্যানের অভিযোগ অস্বীকার করেন।

গত বুধবার বিকালে ফেসবুকে ওসি নাজমুলের ধূমপানের দুটি ছবি ছড়িয়ে পড়ে। নিজ কক্ষে বসে ধূমপান করার এই ছবি নিয়ে সমালোচনার ঝড় চারদিকে। দায়িত্বরত অবস্থায় ইউনিফর্ম পরে পুলিশের একজন কর্মকর্তা প্রকাশ্যে ধূমপান করতে পারেন কি-না তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন কেউ কেউ।

এ বিষয়ে সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক) সহ-সভাপতি আবদুন নূর বলেন, ওসির এমন কর্মকাণ্ড আমাদের বোধগম্য নয়। একজন সরকারি কর্মকর্তা নিজ অফিসে বসে প্রকাশ্যে ধূমপান করতে পারেন না। তার কাছ থেকে সমাজের শিক্ষনীয় আছে। এছাড়া প্রকাশ্যে ধূমপান সরকারিভাবেও নিষিদ্ধ। ওসির এমন আচরণে সামাজিক অবক্ষয়ের সৃষ্টি হবে।

জেলা নাগরিক ফোরামের সহ-সভাপতি আতাউর রহমান শাহীন সাংবাদিকদের বলেন, সরকারিভাবে নিষিদ্ধ না হলেও সরকারি কোনও কর্মকর্তা দায়িত্বরত অবস্থায় ধূমপান করতে পারেন না। যদি কেউ এমনটি করে থাকেন, তাহলে সমাজে বিরূপ প্রতিক্রিয়া পড়বে। এতে করে ধূমপায়ীরা উৎসাহিত হবেন।

সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাংবাদিকদের জানান, আমি আমার অফিস কক্ষে কাজ করছিলাম। তখন টেনশনে ছিলাম। ছবিটি কে তুলেছে বুঝতে পারছি না।

সরাইল সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মো. আনিসুর রহমান জানান, অফিস কক্ষে প্রকাশ্যে ধূমপানের বিষয় নিয়ে আমি ওসির সঙ্গে কথা বলেছি। বিষয়টি নিয়ে তিনি বিব্রত। থানা পুলিশের এমন ঘটনায় একই থানার কর্মকর্তা হিসেবে আমি নিজেও বিব্রত।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন।