কবর থেকে সন্তানদের খোঁজ-খবর নেন প্রিন্সেস ডায়ানা, দাবি চিকিৎসকের

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৮:৫১ অপরাহ্ণ, মে ১৩, ২০২০ | আপডেট: ৮:৫১:অপরাহ্ণ, মে ১৩, ২০২০

মারা গেলেও কবর থেকে ঠিকই সন্তানদের খোঁজ রাখছেন ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের পুত্র প্রিন্স চার্লসের প্রথম স্ত্রী প্রিন্সেস ডায়ানা। এমন দাবি প্রিন্সেস ডায়ানার আধ্যাত্মিক চিকিৎসক সিমোনে সিম্মোনস এর।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য ডেইলি স্টারকে সিম্মোনস বলেন, ডায়ানা ১৯৯৭ সালে মারা গেলেও তার সঙ্গে আমার কথা হয়। সম্প্রতি ডায়ানা জানিয়েছেন যে, প্রিন্স হ্যারির রাজপরিবার ছেড়ে চলে যাওয়ায় তিনি শঙ্কিত। প্রিন্স হ্যারিকে নিরাপদে রাখতে ডায়ানা তার আরেক ছেলে প্রিন্স উইলিয়ামকে দায়িত্ব নিতে বলেছেন।

সিম্মোনস জানান, ডায়ানা বেঁচে থাকাকালীন সময়েও তিনি দিনে প্রায় ১৪ ঘণ্টা তার সঙ্গে ফোনে কথা বলতেন।

মৃত ডায়ানার সঙ্গে আলাপচারিতা নিয়ে সিম্মোনস বলেন, ডায়ানা আমার কাছে আসেন। আমি তাকে দেখতে পাই। আমি যা দেখি তাই চিঠিতে উইলিয়ামকে জানিয়ে দেই। যদিও সে এখনো এর কোনো জবাব দেয়নি। ডায়ানা আমাকে সম্প্রতি তার সন্তানদের ওপর নজর রাখার জন্য বলেছেন। আমি জানি তার সন্তানেরা তার মায়ের বান্ধবীর প্রতি বিশ্বাস করবে না। তবে এটাই তার মায়ের বিষয়ে সত্য জানায় একমাত্র উপায়।

গত জানুয়ারিতে ব্রিটিশ রাজপরিবার থেকে বেরিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন প্রিন্স হ্যারি ও তার স্ত্রী মেগান। বর্তমানে প্রিন্স হ্যারি ও মেগান বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় বসবাস করছেন।

১৯৯৭ সালে মধ্য রাতে এক রহস্যজনক সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে ফ্রান্সের পিটি সালপিত্রিও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন প্রিন্স চার্লসের প্রথম স্ত্রী প্রিন্সেস ডায়ানা।