কবি, ঔপন্যাসিক ও সিটি ব্যাংক এমডি মাসরুর আরেফিন করোনায় আক্রান্ত

প্রকাশিত: ৫:১৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০২০ | আপডেট: ৫:১৬:অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০২০

বেসরকারি খাতের দি সিটি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মাসরুর আরেফিন করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন।

রোববার (২৬ জুলাই) সকালে কথাসাহিত্যিক ও সাবেক সচিব হাসনাত আব্দুল হাই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট দিয়ে মাসরুর আরেফিনের করোনা পজিটিভ হওয়ার খবর জানিয়েছেন। সেখানে হাসনাত আব্দুল হাই লিখেছেন, “কবি ও কথাসাহিত্যিক মাসরুর আরেফিন করোনা আক্রান্ত। তার দ্রুত আরোগ্য কামনা করি।”

এরপর ব্যাংক পাড়ায় খবরটি দ্রুত বিস্তার লাভ করে এবং ব্যাংকাররা উদ্বেগ উৎকন্ঠা প্রকাশ শুরু করেন। এনআরবি ব্যাংক এমডি মেহমুদ হোসেনের পরে মাসরুরই দ্বিতীয় কোনো ব্যাংকের শীর্ষ নির্বাহী যিনি করোনা আক্রান্ত হলেন। সিটি ব্যাংক সূত্রে জানা যায়, শনিবার (২৫ জুলাই) মাসরুর আরেফিন করোনা ভাইরাস পরীক্ষার নমুনা দেওয়ার পর থেকে বাসায় অবস্থান করছেন। রোববার ফলাফল পাওয়ার পরে দেখা যায় তার কোভিড-১৯ পজিটিভ। তবে, তিনি সুস্থ আছেন, বাসাতেই অবস্থান করছেন। আরও জানা যায়, মাসরুর গত এক সপ্তাহে পাঁচ-ছবার অ্যাপোলো এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি থাকা নিজের মায়ের কাছে গিয়েছিলেন। ব্যাংকের নানা সূত্র বলছে তাদের এমডির করোনা পজিটিভ হবার উৎস হতে পারে ওই হাসপাতাল ভিজিট।

২০১৯ সালের ২০ জানুয়ারি মাসরুর আরেফিন সিটি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) পদে নিয়োগ পান।
মাসরুর আরেফিন ২০০৭ সালে সিটি ব্যাংকে যোগ দেন। এর আগে তিনি এএনজেড গ্রিন্ডলেজ ব্যাংকের ম্যানেজমেন্ট ট্রেনি হিসাবে ১৯৯৪ সালে ক্যারিয়ার শুরু করে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক, সিটি ব্যাংক এনএ, আমেরিকান এক্সপ্রেস ব্যাংক ও ইস্টার্ন ব্যাংকে কাজ করেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ব্যাংক পাড়ার বাইরে মাসরুর আরেফিন বৃহত্তর সমাজে মূলত পরিচিত কবি, ঔপন্যাসিক ও অনুবাদক হিসেবে। কথাসাহিত্যিক হাসনাত আবদুল হাই গত বছরের শুরুতে নিজের ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে দাবি করেন যে, “মাসরুর আরেফিন এই মুহূর্তে বাংলা ভাষার সবচেয়ে শক্তিশালী কথাসাহিত্যিক।” মাসরুরের দুই অনুবাদ ‘ফ্রানৎস কাফকা গল্পসমগ্র’ ও ‘হোমারের ইলিয়াড’ বাংলা অনুবাদ সাহিত্যে দুটি বড় কাজ হিসেবে স্বীকৃত। এর পরে সাম্প্রতিককালে তিনি নাম করেন ‘প্রথমা’ থেকে প্রকাশিত তার দুই বহুল আলোচিত উপন্যাসের জন্য, একটি বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড নিয়ে লেখা “আগস্ট আবছায়া” ও অন্যটি “আলথুসার”। তার কবিতার বই দুটিরও—”ঈশ্বরদী মেয়র ও মিউলের গল্প” এবং এ বছরে প্রকাশিত “পৃথিবী এলোমেলো সকালবেলায়”—নিজস্ব বড় পাঠকগোষ্ঠী রয়েছে। তার পাঠকেরা ফেসবুক ও সামাজিক মাধ্যমে লেখকের এই করোনা আক্রান্ত হবার খবরে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।