করোনার ওষুধ বানাতে চান সাজাপ্রাপ্ত আসামি, ল্যাবে কাজ করার সুযোগ চেয়ে আবেদন

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:০০ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৮, ২০২০ | আপডেট: ৭:০০:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৮, ২০২০

কোভিড-১৯’এ বিপর্যস্ত বিশ্ব। এমন মহা বিপর্যয়ে এক হয়েছে বিশ্ব মানবতা। দিক থেকে দিকে বিভিন্ন খাতে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিচ্ছেন বিভিন্ন সামর্থ্যবানরা। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের এক বন্দির মানবিক আবেদন একটু ভিন্নই বটে।

করোনার ওষুধ বানানোর জন্য ল্যাবে কাজ করার সুযোগ চেয়ে কারা কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেছেন মার্টিন শেকরেলি নামে এক সাজাপ্রাপ্ত আসামি।

আমেরিকায় ‘ফার্মা ব্রো’ হিসেবে পরিচিত মার্টিন শেকরেলি এইচআইভির ওষুধের দাম ৫ হাজার গুণ বাড়িয়ে নিজের সুনাম নষ্ট করেন। প্রতিটি ট্যাবলেটের দাম ১৩.৫০ ডলার থেকে বাড়িয়ে করেছিলেন ৭৫০ ডলার। ৩৭ বছরের এ কর্মকর্তা হেজ ফান্ড নিয়ে বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে প্রতারণার দায়ে ২০১৮ সালে সাতবছরের সাজাপ্রাপ্ত হয়ে জেল খাটছেন।

এ সপ্তাহে তার আইনজীবী বেন ব্রাফম্যান বলেন, শেকরেলি কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেছেন তাকে তিনমাসের জন্য মুক্তি দিতে, যাতে তিনি করোনার ওষুধ তৈরীতে ল্যাবে কাজ করতে পারেন। এ ক্ষেত্রে সরকারের কড়া নজরদারি থাকতে পারে। ব্রাফম্যান এক বিবৃতিতে বলেন, আমি আগে থেকেই বলে আসছি যদি তাকে ল্যাবে কাজ করার সুযোগ দেয়া হয় তবে ক্যান্সারের ওষুধও আবিষ্কার করতে পারেন তিনি। করোনাভাইরাসের ওষুধ উদ্ভাবনেও তিনি বিজ্ঞানীদের অনেক ভালো সহযোগিতা দিতে পারেন।

মার্টিন শেকরেলি দাবি করেছেন, করোনা মহামারি প্রতিরোধে ফার্মাসিউটিক্যাল কম্পানিগুলো যে প্রচেষ্টা করছে তা যথেষ্ট নয়। তিনি বলেন, কভিড-১৯ এর ওষুধ আবিষ্কার হওয়া পর্যন্ত কম্পানিগুলোকে অবশ্যই ল্যাবে পড়ে থাকতে হবে।

তিনি বলেন, ‘বহু ওষুধ কম্পানির সঙ্গে আমি কাজ করেছি, অনেক নতুন নতুন ওষুধ উদ্ভাবন করেছি। এমনকি আমি গুটিকয় নির্বাহীর অন্যতম, ওষুধ উদ্ভাবনের সব ধরনের দিক নিয়ে যার অভিজ্ঞতা রয়েছে। ফলে মহামারি ঠেকাতে বড় ভূমিকা রাখতে পারি আমি’