করোনায় যশোর কারাগার থেকে মুক্তির তালিকায় ১শ’ ২০ কারাবন্দি

প্রকাশিত: ৯:৩৪ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৭, ২০২০ | আপডেট: ৯:৩৬:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৭, ২০২০
প্রতীকী ছবি

সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী যশাের কেন্দ্রীয় কারাগারে মুক্তির তালিকায় রয়েছে ১শ’ ২০জন বন্দী। সম্প্রতি করােনা ভাইরাসের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক ঘােষিত দেশের কারাগারে লঘু দন্ডপ্রাপ্ত আসামীদের মুক্তির যে তালিকা করা হয়েছে তাতে অত্র কারাগারে রয়েছে ১শ ২০জন। যশাের কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার তুহিন কান্তি খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এছাড়া, তিনি আরাে জানান,করােনা ভাইরাস প্রতিরােধ হিসেবে মঙ্গলবার ৭ এপ্রিল থেকে কারাগারে বন্দিদের সাথে দেখা সাক্ষাত বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। বন্দিদের সাথে তার আত্মীয়স্বজনদের কথা বার্তার সুবিধা হিসেবে ভিতরে ৩টি হ্যান্ডসেট চালু করা হয়েছে। ৫টি সেট এর অনুমােদন থাকলেও মঙ্গলবার থেকে ৩টি হ্যান্ড সেটের মাধ্যমে বন্দিরা তাদের আত্মীয়স্বজনদের সাথে আলাপ করার সুযােগ পাবেন।

জেলার তুহিন কান্তি খান জানিয়েছেন,স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক ঘােষিত যশাের কেন্দ্রীয় কারাগারে লঘু দন্ডপ্রাপ্ত আসামীদের মধ্যে যে সব সাজাপ্রাপ্ত আসামী রয়েছেন। তার মধ্যে ২০ বছরের অধিক সাজা ভােগ প্রাপ্তর সংখ্যা রয়েছে ৭৫ জন, ১মাস থেকে ১ বছর পযন্ত লঘু সাজাপ্রাপ্ত আসামীর সংখ্যা রয়েছে ৪২ জন ও ৩জন রয়েছে অচল ও পঙ্গু আসামী।

কারাগারের জেলার জানিয়েছেন,কারাগারে আদালত থেকে নতুন আসামী প্রবেশ করলে তাদেরকে একটি ওয়ার্ডে রেখে সেখান ১৪ দিন রাখার পর সেখান থেকে তাকে পর্যায়ক্রমে অপরাধের ধরন হিসেবে তাকে নিয়ম মােতাবেক ওয়ার্ডে রাখা হয়। কারাগারে থাকা বন্দিদের করােনা ভাইরাস থেকে রক্ষার জন্য সর্তকতা মূলক ব্যবস্হা গ্রহন করা হয়েছে ইতিমধ্যে। মঙ্গলবার ৭ এপ্রিল থেকে বন্দিদের সকল আসামীদের সাথে তার আত্মীয়স্বজনদের দেখা সাক্ষাত বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

বন্দিদের কথা ভেবে তাদেরকে তার পরিবারর সদস্যদের যােগাযােগ স্হাপন করতে কারাগারের ভিতর মঙ্গলবার থেকে ৩টি হ্যান্ডসেট দেয়া হয়েছে। যে হ্যান্ডসেটের মাধ্যমে বন্দিরা তাদের আত্মীয়স্বজনদের মােবাইল নাম্বারে কথা বলার সুযােগ পাবে। পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত কারাগারে এই বিরাজ করবে বলে জেলার জানিয়েছেন।