করোনায় হতাশাগ্রস্তদের সাহস দিলেন ‘কেডি পাঠক’

টিবিটি টিবিটি

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:১৯ পূর্বাহ্ণ, জুন ৫, ২০২০ | আপডেট: ১১:১৯:পূর্বাহ্ণ, জুন ৫, ২০২০

করোনার জেরে ঘোষিত লকডাউনের কারণে দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে স্থবির বিনোদন দুনিয়া। নাটক, টিভি সিরিয়াল, সিনেমা- সবকিছুর শুটিং বন্ধ ছিল। ফলে কাজ হারিয়ে আর্থিক অভাবে দিন কাটাচ্ছেন বিভিন্ন ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির নিম্ন ও মধ্যম আয়ের শিল্পীরা। অভাব থেকে বাড়ছে হতাশা। সেই হতাশা থেকে ইতোমধ্যেই ভারতে আত্মহত্যা করেছেন একাধিক অভিনয়শিল্পী। অনেকের সংসার চলছে দারুণ দুর্দশায়।

সে সকল হতাশাগ্রস্ত শিল্পীদের সাহস দিলেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা রনিত রায়। যিনি সিনেমার চেয়েও বেশি পরিচিতি ও জনপ্রিয়তা পেয়েছেন সনি টিভির অপরাধ বিষয়ক অনুষ্ঠান ‘আদালত’-এ কেডি পাঠক চরিত্রে অভিনয় করে। সম্প্রতি একটি সংবাদমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে নিজের জীবনের নানা ওঠা-পড়া নিয়ে আলোচনা করেন তিনি। সেখানে বর্তমানে হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়া শিল্পীদের উদ্দেশ্যে নানা উপদেশমূলক কথাও বলেন।

রনিত রায় জানিয়েছেন, ‘নিজেকে শেষ করে দেওয়া কোনও সমাধান নয়। ১৯৯২ সালে আমার প্রথম ছবি জান তেরে নাম মুক্তি পেয়েছিল। ব্লকবাস্টার হিট ছিল ছবিটি। আজকালকার দিনের ১০০ কোটি টাকার ছবি। প্রথম ছবি এই স্তরের ছিল। তার পর আচমকাই ৬ মাস ধরে কোনও কল নেই। বেশ কিছু ছোটখাটো কাজ করেছিলাম সেই সময়। প্রায় ৩ বছর ধরে সেগুলোই করে গিয়েছি। ৯৬ পর্যন্ত।’

তিনি আরও বলেছেন, ‘প্রায় ৪ বছর ধরে আমি বাড়িতে বসেছিলাম। আমার একটা ছোট গাড়ি ছিল। কিন্তু পেট্রোল ভরানোর টাকা ছিল না। আমি মায়ের বাড়ি পর্যন্ত হেঁটে যেতাম। সেখানে গিয়ে খেতাম। সিলভার জুবিলি ফিল্মে কাজ করার পরও আমার কাছে কোনও টাকা ছিল না। আমি কিন্তু মেরে ফেলিনি নিজেকে। আমি কাউকে বিচার করছি না। প্রত্যেকে জীবনে আর্থিক সংকটের সম্মুখীন হয় কখনও না কখনও। কিন্তু সংকটে পড়লে নিজেকে শেষ করে দেওয়া কখনওই কোনও সমস্যার সমাধান হতে পারে না। নিজের জীবন শেষ করা কোনও সমস্যারই সমাধান হতে পারে না।’

করোনার সংক্রমণ নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় ভুগছেন সবাই। সেটাই স্বাভাবিক। এই উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা থেকে মনের ওপর তৈরি হয় বাড়তি চাপ। আতঙ্ক, অহেতুক রাগ বা অবসাদের লক্ষণও দেখা দিতে পারে। কিন্তু যে কোনও বিপদ মোকাবিলার সময় চাই ধৈর্য, দায়িত্বশীল আচরণ আর সাহস। কিন্তু মানসিক অবসাদের কাছে শেষ পর্যন্ত হার মেনেছিলেন অভিনেতা মনমীত গ্রেওয়াল। অভিনেতা রাজেশ করিরও সোশ্যাল মিডিয়ায় অত্যন্ত মর্মান্তিক পরিস্থিতির বর্ণনা করেছেন। আর্জি জানিয়েছেন, তিনি বাঁচতে চান।

টেলিভিশন অভিনেতা রাজেশ করির সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আর্থিক সাহায্যের আবেদন জানালেন। রাজেশ ‘বেগুসরাই’ নামে একটি শোয়ে অভিনয় করেছিলেন। ফেসবুকে একটি ভিডিয়ো মারফত আবেদন জানিয়েছেন, ‘এখন সংকোচ করলে বাঁচা কঠিন হয়ে যাবে। আমার অবস্থা সত্যিই শোচনীয়। তাই আপনাদের কাছে আমি সাহায্যের আর্তি জানাচ্ছি। কবে আবার কাজ হবে জানি না। এও জানি না, ফের কাজ পাব কি না। আপনারা যদি তিনশো-চারশো টাকা করেও অর্থসাহায্য দেন, তা হলে উপকৃত হই।’