করোনা থেকে সুস্থ হলেন এস আলম পরিবারের সদস্যরা

প্রকাশিত: ৬:০৫ অপরাহ্ণ, জুন ৪, ২০২০ | আপডেট: ৬:০৫:অপরাহ্ণ, জুন ৪, ২০২০
ছবি: সংগৃহীত

নভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হওয়ার পর চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে উঠেছেন দেশের অন্যতম শীর্ষ ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান এস আলম গ্রুপের চেয়ারম্যান শিল্পপতি সাইফুল আলম মাসুদের পরিবারের সাত সদস্য।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পক্ষ থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এখন এই পরিবারে করোনায় আক্রান্ত রয়েছেন শুধু একজন। তিনি সদ্য প্রয়াত মোরশেদুল আলমের ছেলে মাহমুদুল আলম আকিবের স্ত্রী। ২৮ মে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড থেকে দেওয়া নমুনায় তিনি করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন। এস আলম পরিবারের ২৪ বছর বয়সী এই পুত্রবধূ সীতাকুণ্ডের সংসদ সদস্য দিদারুল আলমের মেয়ে।

জানা গেছে, গত ২৪ মে থেকে এস আলম পরিবারের করোনায় আক্রান্ত সাত সদস্যই ঢাকার আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন আইসিইউযুক্ত বিশেষায়িত কেবিনে। এরপর টানা ১৮ দিন করোনাভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করে শেষপর্যন্ত বুধবার (৩ জুন) তাদের সুস্থ বলে ঘোষণা করা হয়।

করোনাভাইরাস মুক্ত হলেন এস আলম পরিবারের সদস্যরা। ছবি: সংগৃহীত

১৭ মে চট্টগ্রাম নগরীর সুগন্ধা আবাসিক এলাকার ১ নম্বর রোডের বাসায় অবস্থান করা এস আলম গ্রুপের চেয়ারম্যান সাইফুল আলম মাসুদের পরিবারের ৬ সদস্য করোনা পজিটিভ রোগী হিসেবে শনাক্ত হন। এরা হলেন এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের পরিচালক ৬২ বছর বয়সী মোরশেদুল আলম, এস আলম গ্রুপের পরিচালক ৬০ বছর বয়সী রাশেদুল আলম, এস আলম গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান ৫৩ বছর বয়সী আবদুস সামাদ লাবু, ইউনিয়ন ব্যাংক ও এস আলম গ্রুপের পরিচালক মোহাম্মদ শহীদুল আলম এবং এস আলম গ্রুপের পরিচালক ৪৫ বছর বয়সী ওসমান গণি ও তার স্ত্রী ফারজানা বেগম।

এর মধ্যেই ২২ মে এস আলম পরিবারের জ্যেষ্ঠ সদস্য এবং সাইফুল আলম মাসুদের বড় ভাই মোরশেদুল আলম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইসিইউ ওয়ার্ডে মারা যান।

অন্যদিকে এর পরদিনই (২৩ মে) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন সাইফুল আলম মাসুদের মা ৮৫ বছর বয়সী চেমন আরা বেগম এবং ২৬ বছর বয়সী ছেলে আহসানুল আলম মারুফও।

বর্তমানে সিঙ্গাপুরে অবস্থান করা এস আলম গ্রুপের চেয়ারম্যানের আগ্রহে করোনায় আক্রান্ত তার মা ও বড় ছেলেকে ২৩ মে চট্টগ্রাম থেকে সরিয়ে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর ২৪ মে করোনায় শয্যাশায়ী অপর চার ভাই ও এক ভাইয়ের স্ত্রীকে আইসিইউযুক্ত অ্যাম্বুলেন্সযোগে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। এর পরপরই তাদের সবাইকে ভর্তি করা হয় ঢাকার ধানমণ্ডিতে আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

এদিকে ২৮ মে নতুন করে এস আলম পরিবারে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন সদ্য প্রয়াত মোরশেদুল আলমের ছেলে মাহমুদুল আলম আকিবের স্ত্রী। তিনি চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের সংসদ সদস্য দিদারুল আলমের মেয়ে এবং চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র এম মনজুর আলমের নাতনি। ফৌজদারহাটের বিআইটিআইডি ল্যাবের নমুনা পরীক্ষায় ২৪ বছর বয়সী এই তরুণী করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হন। গত ২৩ মে তিনি সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনার নমুনা দিয়েছিলেন। বর্তমানে তিনি চট্টগ্রামে থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে জানা গেছে।