করোনা: বাজার করার সময় যেসব বিষয় খেয়াল রাখা জরুরি

প্রকাশিত: ৫:২৪ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৯, ২০২০ | আপডেট: ৫:২৪:অপরাহ্ণ, মার্চ ২৯, ২০২০

করোনাভাইরাস নিয়ে চলমান আতঙ্কের প্রভাবে কাঁচাবাজার থেকে সুপারশপ সবখানেই কিছু না কিছু ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ফলে এই স্থানগুলো পরিচ্ছন্নতা রক্ষার বিষয়গুলো চোখে পড়বেই। তবে তা কখনই নিরাপদ নয়।

কারণ এই স্থানগুলোতে শুধু করোনাভাইরাস নয়, অন্যান্য অসংখ্য ভাইরাস, ব্যাক্টেরিয়া ছড়িয়ে থাকে যা পুরোপুরি ধ্বংস করা সম্ভব নয় কখনই।

ব্যক্তিগতভাবে বিভিন্ন সতর্কতা অবলম্বন করলেও নিজের অজান্তেই রোগ জীবাণুর সংস্পর্শে আপনি আসবেনই। নিরাপত্তা ব্যবস্থা অবলম্বন করা পরেও তাই সাবধান থাকতে হবে।

স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটের প্রকাশিত প্রতিবেদনের আলোকে জানানো হলো এ বিষয়ে বিস্তারিত-

১. সুপারশপে বাজার করার সময় অবশ্যই আপনাকে ঝুড়ি হাতে নিতে হবে। আর ঝুড়ি কিংবা কার্টের হাতলগুলো প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ স্পর্শ করেন। তাই এই হাতল থেকে জীবাণু সংক্রমিত হতে পারে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, সুপারশপগুলোর প্রায় অর্ধেক ঝুড়িতে থাকে এনটেরোব্যাক্টেরিয়া, যার কারণে অন্ত্রের বিভিন্ন রোগ হয়ে থাকে। তাই জীবাণুমুক্ত থাকতে ঝুঁড়ির হাতলগুলো জীবাণুনাশক ‘ওয়াইপস’ দিয়ে মুছে নিতে হবে।

২. সুপারশপ ও মুদি দোকানের ফ্রিজের হাতলগুলোও প্রতিদিন বহু মানুষ স্পর্শ করেন। তাই জীবাণুমুক্ত থাকতে ফ্রিজের হাতলগুলো ধরার আগে জীবাণুনাশক ‘ওয়াইপস’ দিয়ে মুছে নিতে হবে। বাজারে যাওয়ার সময় সঙ্গে ‘হ্যান্ড স্যানিটাইজার’ নিয়ে যান। আর ফ্রিজের হাতল স্পর্শ করার পরই তা দিয়ে হাত পরিষ্কার করুন।

৩. হিমায়িত খাবার কেনার আগে কিছু বিষয় অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে। খেয়াল করে দেখুন হিমায়িত খাবারের প্যাকেটে কোনো ফুটো আছে কিনা বা পানি পড়ছে কিনা। এসব প্যাকেট ছিঁড়ে গেলে রোগ-জীবাণু খুব সহজে প্যাকেটের ভেতরে প্রবেশ করে, যা খেলে অসুস্থ হয়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

৪. বাসা থেকে ব্যাগ নিয়ে বাজার করতে যান অনেকে। তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে কাঁচাবাজারের ক্ষেত্রে তা নিরাপদ নয়। কারণ বাজারের বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকে জীবাণু। এসব জীবাণু ভরা জায়গা থেকে সদাই নিয়ে ঘুরে আসা ব্যাগ ঘরে জীবাণু ছড়াতে পারে।

তাই প্রতিবার ব্যবহারের পর তা ভালোভাবে জীবাণুনাশক দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে। না হলে এ ব্যাগই হয়ে ওঠে রোগ-জীবাণুর কারখানা। আর এক ব্যাগ একাধিকবার ব্যবহার না করাই ভালো।