করোনা মহামারীর মাত্রা গোপন করেছে চীন: মার্কিন গোয়েন্দা

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:১৪ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২, ২০২০ | আপডেট: ১২:১২:পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ৩, ২০২০

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মাত্রা নিয়ে চীন তথ্য গোপন করেছে বলে যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে। তারা বলছে, চীন তাদের দেশে করোনাভাইরাসে প্রকৃত আক্রান্ত ও মৃতের প্রকৃত সংখ্যা প্রকাশ করেনি।

প্রভাবশালী মার্কিন সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চীনের করোনাভাইরাস নিয়ে সম্প্রতি হোয়াইট হাউসকে এমনই প্রতিবেদন দিয়েছে মার্কিন গোয়েন্দারা। অন্তত তিনজন মার্কিন কর্মকর্তা এ বিষয়ে নিশ্চিত করেছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এই কর্মকর্তারা জানান, প্রতিবেদনটি খুবই গোপনীয়। তাই তারা এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু প্রকাশ করবেন না।

তবে তারা জানান, আক্রান্ত এবং মৃত্যুর বিষয়ে চীনের প্রকাশ করা প্রতিবেদন ইচ্ছাকৃতভাবে অসম্পূর্ণ। দুজন কর্মকর্তা জানান, মার্কিন গোয়েন্দারা প্রতিবেদনটিতে এই সিদ্ধান্তে একমত হয়েছেন যে, করোনাভাইরাস সংক্রান্ত চীনের পরিসংখ্যান ভুয়া।

প্রতিবেদনের মূল ধারণায় তারা বলেছেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যু নিয়ে চীনের সরকারি প্রতিবেদন ইচ্ছাকৃতভাবে অসম্পূর্ণ রাখা হয়েছে।

গোয়েন্দাদের এই প্রতিবেদন গত সপ্তাহে হোয়াইট হাউস গ্রহণ করে। গত বছরের শেষ দিনে চীনের হুবেইপ্রদেশের রাজধানী উহান শহর থেকে এ ভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হয়েছে।

চীন সরকার বলছে, এখন পর্যন্ত তাদের মূল ভূখণ্ডে ৮২ হাজার লোক আক্রান্ত হয়েছেন। আর মারা গেছেন তিন হাজার ৩০০ লোক। অথচ যুক্তরাষ্ট্রে ১ লাখ ৮৯ হাজার লোক আক্রান্ত ও চার হাজারের মৃত্যু হয়েছে।

ব্লুমবার্গের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মার্কিন গোয়েন্দাদের প্রতিবেদন নিয়ে জানতে চাইলে হোয়াইট হাউসের যোগাযোগ কর্মকর্তা কিংবা ওয়াশিংটনের চীনা দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।

মহামারী মোকাবেলায় চীনের তৎপরতা নিয়ে কঠোর সমালোচনা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান আইনপ্রণেতারা। তবে চীনের এই ভূমিকা থেকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প রাজনৈতিকভাবে লাভবান হবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ভাইরাসের ব্যাপক পরীক্ষার ব্যবস্থা এবং ফেস মাস্ক ও হাসপাতাল ভেন্টিলেটরসহ চিকিৎসা সরঞ্জাম মজুতে নিজের ব্যর্থতার দায় তিনি অন্য কোথাও চাপিয়ে দিতে চেষ্টা করছেন।

সিনেটর বেন সাসি বলেন, করোনাভাইরাসে চীনের চেয়ে যুক্তরাষ্ট্রে বেশি মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করা হচ্ছে, তা ঠিক নয়।

‘যে কোনো গোপনীয় তথ্য নিয়ে মন্তব্য না করেও এমনটি বলা যায় যে, নিজ সরকারকে রক্ষায় করোনাভাইরাস নিয়ে চীনা কমিউনিস্ট পার্টি মিথ্যা বলেছে, মিথ্যা বলছে এবং অব্যাহত মিথ্যা বলেই যাবে।’