করোনা মোকাবিলায় ইমিউনিটি বাড়ানোর ‘গোপন ফর্মুলা’ জানালেন সোনালি বেন্দ্রে

টিবিটি টিবিটি

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:৪৫ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৮, ২০২০ | আপডেট: ৯:৪৫:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৮, ২০২০

ক্যানসার আক্রান্ত হয়েছিলেন বলিউড অভিনেত্রী সোনালি বেন্দ্রে। দীর্ঘ লড়াইয়ের পরে সেই রোগ থেকে সেরে উঠেছিলেন তিনি। বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবসে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পরামর্শ দিলেন অভিনেত্রী।

সারা বিশ্ব এখন করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে কাঁপছে। চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞরা বলছেন করোনার সঙ্গে লড়াইয়ের সবচেয়ে বড় অস্ত্র হল শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো। তাই এই সময়েই শরীরের রোগ প্রতিরোধের টিপস দিলেন সোনালি। ক্যানসারের মতো মারণ রোগের সঙ্গে লড়াই করে তিনি ইমিউনিটি বাড়াতে ঠিক যে ধরনের রুটিন নিয়মিত অনুসরণ করেন তার পুরোটাই এই অতিমারির সময় ভক্তদের সামনে তুলে ধরলেন।

সোনালি লিখেছেন, ‘‘শরীরের ভেতরে রোগ ঢুকে পড়ে না। রোগ এলে শরীর কেমন করে তার মোকাবিলা করছে সেইটাই আসল প্রশ্ন। আর যার ইমিউনিটি পাওয়ার যত বেশি তার রোগ প্রতিরোধ করার সম্ভাবনা ততই বেশি’।

সোনালি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি-সহ তিনটে উপায় বাতলেছেন। প্রথমে দেখা যাচ্ছে তিনি ভেপার নিচ্ছেন। তারপর দেখা যাচ্ছে তিনি এক গ্লাস গরম জল খাচ্ছেন। শেষে একটি স্মুদির উল্লেখ করেছেন তিনি। এই স্মুদি শাক, আখরোট, গাজর, আমলা, কাঁচা হলুদ, আদা, ব্লুবেরি, ক্র্যানবেরি, আপেল, কাঠবাদাম, অ্যাপ্রিকট, দারচিনি দিয়ে তৈরি করে রোজ সকালে শেষ দু’বছর ধরে খাচ্ছেন। সোনালি জানান, এই রুটিন তাঁকে ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াই করতে সফল করেছে। শরীরের ইমিউনিটি বাড়িয়েছে।

তিনি বলেন, ‘কেমো নেওয়ার সময় বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ইনফেকশনের ভয় থাকে। আমার ইমিউনিটি আমায় সেই ইনফেকশন থেকে রক্ষা করেছে। আমি চাই করোনার সময় যখন এত ইমিউনিটি নিয়ে কথা হচ্ছে মানুষ আমার এই ‘সিক্রেট ফর্মুলা’ জানুক। সুস্থ থাকুক’।

সোনালির তীব্র প্রাণশক্তি ও অদম্য ইচ্ছাশক্তির কাছে হার মেনেছে ক্যানসার। মনের জোর ও সাহসকে অবলম্বন করে ক্যানসার জয়ীদের তালিকায় এখন উঠে এসেছে তাঁর নামও। তাঁর দুরন্ত কামব্যাক বেঁচে থাকার রসদ জোগাতে পারে বিশ্বের সব ক্যানসার আক্রান্তকেই।

হাই গ্রেড মেটাস্টেসিস ক্যানসার শরীরে বাসা বেঁধেছে। এ কথা প্রকাশ্যে এসেছিল ২০১৮-য়। নিজেই টুইট করে জানিয়েছিলেন তা। খবর আসতেই পায়ের তলার মাটি সরে গিয়েছিল সোনালি বেন্দ্রের। নিউ ইয়র্কে উড়ে গিয়েছিলেন সত্ত্বর।

চিকিৎসা চলাকালীনই প্রথম ক্যানসারের খবর কী ভাবে তাঁকে ও তাঁর পরিবারকে দুরমুশ করে দিয়েছিল, সে কথাও জানিয়েছিলেন এক টিভি শো-য়ে। “ক্যানসার হয়েছে শুনে আমি সারা রাত ঘুমোতে পারিনি। শুধু কেঁদেছি। আর ভেবেছি, কেন আমার সঙ্গেই এমনটা হল?” সেই সোনালি করোনা আক্রান্ত বিশ্বে তাঁর ইমিউনিটির রহস্য ফাঁস করলেন নেটাগরিকদের কাছে।