কলার ভেলা বাইচ রাজৈরে (ভিডিও)

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৪:০৬ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৮ | আপডেট: ৪:০৬:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৮

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজার আগমন উপলক্ষে মাদারীপুরের রাজৈরে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে অনুষ্ঠিত হয় কলার ভেলা বাইচ। হাজার হাজার দর্শনার্থী প্রথমবারের মতো আনন্দ উল্লাসে উপভোগ করে অভিনব এই ভেলা বাইচ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রাচীনকাল থেকে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মনসা পূজা, বিশ্বকর্মা পূজা, বিজয়া দশমী, লক্ষ্মী পূজা, কালি পূজাসহ বিভিন্ন তিথি অনুযায়ী রাজৈরের বিভিন্ন স্থানে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচের আয়োজন করা হয়ে থাকে। এ বছর বর্ষায় পর্যাপ্ত পানি না হওয়ায় নৌকা বাইচের আয়োজন করতে পারছে না আয়োজকরা। কালের বিবর্তনে নৌকা বাইচ নিয়ে নৌপথে প্রতিযোগিতা অনেকটাই হারিয়ে যেতে বসেছে।

এক সময় সারা বাংলায় জনপ্রিয় ছিল নৌকা বাইচ। সেই নৌকা বাইচের ধারাবাহিকতা মানুষের মাঝে তুলে ধরতে ও শারদীয় দুর্গা পূজার আগমন উপলক্ষে মানুষের মনে আনন্দ উদ্দীপনা জাগ্রত করে তুলতে এই ব্যতিক্রম আয়োজন করা হয়।

কলা গাছের ভেলা বাইচ প্রতিযোগিতায় ছয় ভাগে ৫৩টি দল অংশ নেয়। পরে ফাইনাল রাউন্ডে চৌরাশী গ্রামের কার্তিক বৈদ্যের ভেলা প্রথম হয়। এ ছাড়া উপজেলার আমগ্রাম থেকে আসা কৃষ্ণ করাতির ভেলা দ্বিতীয় এবং চৌরাশী গ্রামের জগদীশ ভক্তের ভেলা তৃতীয় হয়।

প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন বাজিতপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম হাওলাদার। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজৈর ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক সাংবাদিক নিত্যানন্দ হালদার, আওয়ামী লীগ নেতা নিত্যানন্দ বিশ্বাস, চেয়াম্যানের সহধর্মিনী তৃষা হাওলাদার প্রমুখ।

রাজৈর উপজেলা থেকে আসা মঞ্জু রানী বিশ্বাস বলেন, ‘ভেলা বাইচের এই আয়োজন দেখে আমি মুগ্ধ। আমি পরিবার পরিজন নিয়ে এই ভেলা বাইচ দেখতে এসেছি। আগামীতেও এমন আয়োজন হলে আমি আসব। এ ধরনের আয়োজন আমার কাছে খুব ভালো লেগেছে।’

স্থানীয় যুব সমাজের আহ্বায়ক ও ভেলা বাইচের উদ্যোক্তা প্রশান্ত মণ্ডল বলেন, ‘নৌকা বাইচের ধারাবাহিকতায় মানুষের মাঝে তুলে ধরতে ও শারদীয় দুর্গা পূজার আগমন উপলক্ষে মানুষের মনে আনন্দ উদ্দীপনা জাগ্রত করতে আমরা এই ভেলা বাইচের আয়োজন করেছি। সবার সহযোগিতা পেলে আগামীতেও এই ভেলা বাইচের ধারা অব্যাহত রাখতে চাই।’