কসবায় স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষণ

প্রকাশিত: ৭:৫৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮ | আপডেট: ৭:৫৫:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮
প্রতীকী ছবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় স্বামীকে গাছের সাথে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে পালক্রমে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ধর্ষিতা গৃহবধূর স্বামী গত সোমবার রাতে রেজাউল (৩৫) ও আলী মিয়া (৩৭) নামের দুই যুবকের বিরুদ্ধে কসবা থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
পুলিশ মামলা রজ্জু করে মঙ্গলবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে নিয়ে ধর্ষিতা গৃহবধূকে ডাক্তারি পরীক্ষা করিয়েছে। তবে বুধবার পর্যন্ত অভিযুক্ত কাউকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়নি।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, গত রোববার গভীর রাত সাড়ে ৩টার দিকে কসবা উপজেলা খাড়েরা ইউনিয়নের ধর্মপুর গ্রামের মহসিন মিয়ার ছেলে রেজাউল মিয়া (৩৫) ও কানু মিয়ার ছেলে আলী মিয়া (৩৭) সিধ কেঁটে একই গ্রামের এক রিক্সা চালকের (৫০) ঘরে প্রবেশ করে। তারা কোনো কিছু বুঝে উঠার আগেই গৃহস্বামীকে ধরে ঘরের বাইরে নিয়ে বাড়ির কাঁঠাল গাছের সাথে বেঁধে ফেলে। এ সময় তাদেরকে অস্ত্রের মুখে পণবন্দি করে রাখায় স্বামী-স্ত্রী কেউ চিৎকার করার সাহস পাননি।
পরে অভিযুক্তরা স্বামীকে মুখ বাঁধা অবস্থায় গাছে বেঁধে রেখে গৃহবধূকে ঘরে নিয়ে প্রায় দুই ঘন্টাব্যাপী পালক্রমে একাধিকবার ধর্ষণ করে। এতে গৃহবধূ জ্ঞান হারিয়ে ফেললে আসামিরা পালিয়ে যায়। দীর্ঘক্ষণ পর গৃহবধূর জ্ঞান ফিরে এলে তার স্বামীকে গাছে বাঁধা অবস্থা থেকে মুক্ত করে ঘরে আনেন।
এ ঘটনায় গৃহবধূর স্বামী গত সোমবার ওই দুই যুবককে আসামি করে কসবা থানায় মামলা দায়ের করেন।

কসবা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবদুল মালেক বলেন, ধর্ষিতা গৃহবধূর স্বামীর দায়েরকৃত এজাহার থানায় রজ্জু করে ভিকটিমকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে ডাক্তারী পরীক্ষা করানো হয়েছে। ডাক্তারী পরীক্ষার রেজাল্ট পেলে ধর্ষণের বিষয়টি ভালোভাবে নিশ্চিৎ হওয়া যাবে। তবে ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা রয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।