কানাডার জব অফার : যাচাই করবেন যেভাবে

প্রকাশিত: ১০:১০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৮ | আপডেট: ১০:১০:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৮

প্রতিনিয়ত বিভিন্ন মাধ্যমে আমরা এ ধরণের চটকদার বিজ্ঞাপন হরহামেশাই দেখছি। কিছু অসাধু ব্যবসায়ী কোন কানাডিয়ান কোম্পানী থেকে জব অফরের নামে প্রতিনিয়ত ইমিগ্রেশন প্রত্যাশীদের ধোঁকা দিয়ে আসছে। জব অফারের সত্যতা যাচাইয়ে স্বশরীরে কানাডা গিয়ে সেটি দেখা সম্ভব হয় না তাই ফাঁদে পা দেওয়া মানুষের সংখ্যা অনেক বেশি। আর ভুয়া জব অফারের দিয়ে কেউ যদি পার্মানেন্ট রেসিডেন্স-এর জন্যে আবেদন করেন, তাহলে মিথ্যা তথ্য সরবরাহের দায়ে আবেদনকারী নূন্যতম পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধও হতে পারেন। এজন্য জব অফারের সত্যতা যাচাই খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যাচাই করা ছাড়া কোন পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া উচিত নয়।

ভ্যালিড জব অফার কিংবা ওয়ার্ক পারমিট ভিসার সত্যতা যাচাইয়ে করণীয় কী?

জব অফার নিয়ে যোগাযোগকারী ব্যক্তি ও কোম্পানীর ব্যাপারে অনলাইন রিসার্চ করুন। তাদের কোন ওয়েবসাইট না থাকলে অফারটি ভৃয়া হবার সম্ভাবনা থাকে। ওয়েবসাইট থাকলে কন্ট্যাক্ট ডিটেইল দিয়ে গুগলে সার্চ দিয়ে পৃথকভাবে তথ্য সংগ্রহ করুন। রেপুটেড নিয়োগকর্তা বা কোম্পানী রিক্রটের জন্য কর্পোরেট মেইল আইডি ব্যবহার করে থাকেন। তাই ফ্রি ইমেইল প্রোভাইডার যেমন জিমেইল, ইয়াহু, হটমেইল থেকে আসা জব অফারগুলো ঝুঁকিপূর্ণ। যখন কোন নিয়োগকর্তা আপনাকে নিয়োগ করতে চাইবেন, তখন আপনার দক্ষতা। আপনার অর্থ-সম্পদ নয়। তাই বিশ্বস্ত কোম্পানী কখনোই কোন ধরণের আপফ্রণ্ট ফী, ডিপোজিট, ট্রেনিং ফী, ভিসা ফি ইত্যাদি চাইবে না।

একইভাবে যেকোন ওয়ার্কপারমিটের সত্যতা যাচাই করাটাও গুরুত্বপূর্ণ। ওয়ার্ক পারমিট ইস্যু করার অধিকার একমাত্র ’ইমিগ্রেশন, রিফিউজি এ্যান্ড সিটিজেনশীপ, কানাডা’ – এর। সুতরাং একমাত্র তাদের ইস্যুকৃত ওয়ার্কপারমিটের কাগজ আপনি অনলাইন থেকে অন্য যেকোন ওয়ার্ক পারমিটের স্যাম্পলের বা ফরম্যাটের সাথে মিলিয়ে দেখুন। কোন এজেন্সি বা ব্যক্তি যদি আপনাকে জব অফার বা ওয়ার্কপারমিট দিয়ে থাকেন, তবে সেটির সত্যতা যাচাইয়ের জন্যে আপনি ’ইমিগ্রেশন এ্যান্ড সেটেলমেন্ট’ ওয়েবসাইট immigrationandsettlement.org -এ প্রদত্ত ওয়ার্কপারমিট স্যাম্পলটি দেখে নিতে পারেন। এছাড়া ’ইমিগ্রেশন এ্যা- সেটেলমেন্ট’ ফেসবুক গ্রুপ facebook.com/groups/immigrationandsettlement থেকেও আপনি এ সংক্রান্ত সঠিক পরামর্শ লাভ করতে পারেন।

সচেতন হোন, সঠিক তথ্য জানুন। ইমিগ্রেশন দালাল, ফেসবুক পোস্ট অথবা তথাকথিত কনসালট্যান্টদের লোভনীয় প্রস্তাবের দিকে পা বাড়ানোর আগে অবশ্যই একাধিকবার ভাবুন।