কালিয়াকৈরে তরুণী ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

আলহাজ হোসেন আলহাজ হোসেন

কালিয়াকৈর(গাজীপুর) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৯:২৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৮, ২০১৯ | আপডেট: ৯:২৬:অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৮, ২০১৯
ফাইল ছবি

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার পল্লীবিদ্যুৎ বটতলা দিঘির পাড় এলাকায় রোববার বিকেলে পুলিশ এক তরুণী ধর্ষণের অভিযোগে ধর্ষকসহ দুইজনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃত ধর্ষক সোহাগ(২২) সিরাজগঞ্জ জেলার সদর থানার আনিগ্রাম এলাকার তুহিন মিয়ার ছেলে।

পল্লীবিদ্যুৎ এলাকার সানোয়ার দেওয়ানের বাড়ীর ভাড়াটিয়া। ধর্ষকের সহযোগী অলেদা বেগম(৫৫) গাইবান্দা জেলার গবিন্দগঞ্জ থানার মারিয়া গ্রামের মৃত অলি আহম্মেদের স্ত্রী। তিনি বটতলা দিঘির পাড় বাদশা মিয়ার বাড়ীর ভাড়াটিয়া বলে পুলিশ জানান।

পুলিশ আরো জানান, ওই তরুণী চাকুরি খুঁজতে এসে শনিবার রাতে ধর্ষণের শিকার হয়েছে। ওই ঘটনায় রোববার বিকেলে ধর্ষিতা ওই তরুনী বাদী হয়ে ৬ জনের নাম উল্লেখ করে কালিয়াকৈর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, ময়মনসিংহ জেলার মুক্তাগাজা থানার কুমারগাতা এলাকা থেকে গত ১৬ আগষ্ট শুক্রবার সন্ধ্যায় ওই তরুনী চাকুরির খুঁজে গাজীপুরের কালিয়াকৈরের পল্লীবিদ্যুৎ এলাকায় আসে। সেখানে অলেদা বেগম নামের এক নারীর সাথে তার পরিচয় হয়।

পরিচয়ের সুবাদে তরুণী ওই দিন রাতে অলেদা বেগমের ভাড়া বাসায় আশ্রয় নেয়। গত শনিবার রাতে ওই তরুণী অলেদা বেগমের ঘরে ঘুমিয়ে পড়ে। পরে রাত ২টার দিকে সোহাগ সহ কয়েকজন যুবক অলেদা বেগমের বাসায় ঢুকে।

এসময় সোহাগ তাকে জোরপুর্বক ধর্ষণ করে। পরে জিলন, নাককাটা, ফরহাদ, আইনুল তরুণিকে জোরপুবর্ক ধর্ষণের চেষ্টা করে। এসময় তরুণীর ডাকচিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে তারা পালিয়ে যায়।

এঘটনায় রোববার বিকেলে ধর্ষিতা ওই তরুনী বাদী হয়ে সোহাগ, অলেদা, জিলন, নাককাটা, ফরহাদ, আইনুল এর নামে কালিয়াকৈর থানায় মামলা দায়ের করে। মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ সোহাগ ও অলেদাকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধমে গাজীপুর জেলহাজতে পাঠিয়েছে।

কালিয়াকৈর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আতিকুর রহমান রাসেল বলেন, এঘটনায় মামলা হয়েছে। ধর্ষকসহ দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।