কীট সংকট নেই, বিতর্কিত ব্যবসায়ী গোষ্ঠীও জড়িত নেই: সিএমএসডি পরিচালক

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:৫৭ অপরাহ্ণ, জুন ২৮, ২০২০ | আপডেট: ১২:৫৭:অপরাহ্ণ, জুন ২৮, ২০২০

করোনার মধ্যেই কেন্দ্রীয় ঔষধাগারের (সিএমএসডি) পরিচালকের দায়িত্ব চালিয়ে আসা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ শহীদ উল্লাহ’র পরিবর্তে নতুন পরিচালক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন প্রেষণে বাংলাদেশ জাতীয় ইউনেস্কো কমিশনের ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেল (অতিরিক্ত সচিব) আবু হেনা মোরশেদ জামান।

নতুন দায়িত্ব গ্রহণের পর কেটে গেছে ২৫ দিন। আর সেই দায়িত্ব পালনে নিজের ও সহকর্মীদের দায়িত্ববোধ এবং সিএমএসডি’র সামগ্রিক কার্যক্রম নিয়ে আবু হেনা মোরশেদ জামান ফেসবুকে রোববার একটি স্ট্যাটাস দেন।

পাঠকদের জন্য স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো-
রাত ১.১০। অফিস থেকে বাসায় ফিরলাম কিছুক্ষণ আগে। গত ২৫ দিন প্রায় একই রুটিন। ছেলে মেয়েরা আর ওদের মা ডিনার না করেই বসে আছে।

করোনার দুঃস্বপ্ন আর দুঃসময় ঠেকাতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সদয় অনুশাসন অনুযায়ী আমার কাজের জন্য ওদের এই সমর্থন কি দেশের কাজে ওদেরও নিবেদন নয়?

কাজ এগোনো সহজ নয় শুধু, বেশ কঠিন কিংবা তার চাইতেও বেশি। আইনগত জটিলতা, অপেশাদার কর্মীদলের অনভিজ্ঞতার সাথে, সমস্যা চিহ্নিত করে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে গিয়ে বিভিন্ন মহলের নানামতের মধ্যে ভারসাম্য রেখে স্বচ্ছতা, দ্রুততার সাথে উন্নতমানের সুরক্ষা সামগ্রী- তা চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী বা জটিল রোগী যাদের জন্যই হোক না কেন- নিয়ে আসতে আমি এবং আমার সহকর্মীরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। ২৭ জন সহকর্মী কোভিড পজিটিভ । আমারও স্বাস্থ্য ঝুঁকি আছে।

কিন্তু করুণাময় আল্লাহর উপর আস্থা আমাদের। দেশের জনগণের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃঢ় অঙ্গীকার, তাঁর সদয় অনুশাসন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সহযোগিতা, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব মহোদয় এবং মাননীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রীর প্রেরণাসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা পাচ্ছি আমরা।

কোভিড চিকিৎসায় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দল আর প্রকিরউরমেন্ট পরামর্শকদের সাহায্যও নিচ্ছি আমরা। দায়িত্ব নেবার ২৫তম দিনে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত জানাই- কীটের কোনো সরবরাহ সংকট CMSD’র তরফ থেকে এখন নেই আর দামও কমিয়ে আনা হয়েছে অনেক। কোনো বিতর্কিত ব্যবসাগোষ্ঠী জ্ঞাতসারে CMSD তে আর যুক্ত নন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর গভীর আন্তরিকতা, সদিচ্ছা আর সানুগ্রহ সমর্থনের কারণেই আমরা এত দৃঢ় ও লড়াকু ।

তবে, আমরা আলাদিনের চেরাগ এর দৈত্য না। কিন্তু কাজ করছি অক্লান্ত। কাজের চাপে গণমাধ্যমসহ জনগণের কাছে CMSD’র নতুন ব্যবস্থাপনা – তাদের বক্তব্য এবং এক দিনের কাজের অগ্রগতি এখনো জানাতে পারেনি।

তবে দু’একদিনের মধ্যেই আমরা আমাদের কাজের অগ্রগতি জানাবো এবং আগামী মাসের মাঝামাঝির আগেই আমাদের কথা নয় কাজের কিছু সুফল – সংশ্লিষ্ট সকলের কাছে অবশ্যই দৃশ্যমান হবে।

আমি প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি, ব্যক্তিগতভাবে আমি শতভাগ এবং প্রতিষ্ঠান হিসেবে CMSD প্রায় সর্বোচ্চ সততা, দ্রুততা আর পেশাদারিতা নিয়ে তার কাজ সম্পন্ন করবেই।

সবার নেতিচিন্তা পালটে দেবার জেদ ও আত্মবিশ্বাস আমার আছে। তবু মানুষের ভুল হয়, দুর্বিপাক হয়। তাই সবার কাছে শুধু সামান্য ধৈর্য ধারণ, প্রার্থনা আর সহযোগিতার বিনীত অনুরোধ জানাই।

প্রসঙ্গত, দেশে নভেল করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতির মধ্যে চিকিৎসকদের মাস্ক সরবরাহসহ নানা বিষয়ে আলোচনা সমালোচনার জন্ম দেয় সিএমএসডি।