কুকর্মের নথি জাতিসংঘে তুলে ভারতকে সতর্ক করল পাকিস্তান

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬:০৩ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৬, ২০২০ | আপডেট: ৬:০৬:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৬, ২০২০

পাকিস্তানের অভ্যন্তরের সন্ত্রাসবাদকে উস্কে দেওয়ার জন্য প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারতকে দোষারোপ করছে ইসলামাবাদ। যার অংশ হিসেবে এরই মধ্যে জাতিসংঘে একটি অভিযোগপত্র দায়ের করেছে পাকিস্তান সরকার।

ভারত সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে অভিযানের নামে যে অপতৎপরতা চালিয়ে আসছে এবং পাকিস্তানের অভ্যন্তরের সন্ত্রাসবাদ উস্কে দেয়ার জন্য নয়াদিল্লীর বিভিন্ন কুকর্মে জড়িত থাকার প্রমাণস্বরূপ বিভিন্ন নথি বা দলিলাদি জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তেনিও গুতেরেসের কাছে পেশ করে পাকিস্তান। এসময় সীমান্ত এলাকায় নয়াদিল্লি অবৈধ কার্যক্রম চালাচ্ছে উল্লেখ করে ক্ষোভ জানায় ইসলামাবাদ।

ভারত যখন আগামী দুই বছরের জন্য জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন শুরু করতে যাচ্ছে তার আগ মুহূর্তে দেশটির বিরুদ্ধে পাকিস্তান গত মঙ্গলবার সন্ত্রাসবাদে পৃষ্ঠপোষকতা করার জন্য আনুষ্ঠানিক অভিযোগ আনল। আগামী ১ জানুয়ারি থেকে ভারত জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হিসেবে কাজ করবে।

জাতিসংঘে নিযুক্ত পাকিস্তানের স্থায়ী প্রতিনিধি মুনির আকরাম জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে ভারতের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে পৃষ্ঠপোষকতার বিভিন্ন প্রমাণ সম্বলিত অভিযোগপত্র দায়ের করেন।

এসময় মুনির আকরাম বলেন, পাকিস্তানের অভ্যন্তরে ভারতের সন্ত্রাসবাদ এবং ধ্বংসাত্মক কার্যকলাপের বিষয়টি বিশ্বসম্প্রদায়কে বিবেচনায় নিতে হবে। পাশাপাশি ভারত যে অবৈধ এবং আগ্রাসী তৎপরতা চালাচ্ছে সেগুলো প্রতিরোধের ব্যবস্থা করতে হবে। এ সময় তিনি আন্তর্জাতিক আইন, জাতিসংঘ সনদ ও নিরাপত্তা পরিষদে পাস হওয়া বিভিন্ন প্রস্তাব লঙ্ঘনের জন্য ভারতকে অভিযুক্ত করেন।

এদিকে অভিযোগপত্র গ্রহণ করে জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসে বলেন, সন্ত্রাসবাদে পৃষ্ঠপোষকতায় ভারতের জড়িত থাকার বিষয়ে পাকিস্তানের পক্ষ থেকে উত্থাপন করা সব অভিযোগ ও প্রমাণাদি খতিয়ে দেখা হবে।

এর আগে, এক ব্রিফিংয়ে পাকিস্তান মিশনের রাষ্ট্রদূত মুনির আকরাম ব্যাখা করেন, সন্ত্রাসবাদে পৃষ্ঠপোষকতার মাধ্যমে নয়াদিল্লি কীভাবে আঞ্চলিক অস্থিরতা বাড়িয়ে তুলছে। তিনি বলেন, ‘পারমাণিক অস্ত্রের পরীক্ষার পর থেকেই পাকিস্তান-ভারতের মধ্যে বিভেদ আরো জোরালো হয়েছে। বর্তমানে দু’দেশের সম্পর্ক তলানিতে পৌঁছেছে। কারণ, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে নিজেদের সন্ত্রাসী কার্যক্রম আরো বিস্তার ঘটিয়েছে নয়াদিল্লি। এ বিষয়ে আমাদের কাছে যথেষ্ট প্রমাণাদি রয়েছে।’

নয়াদিল্লি কীভাবে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করছে তা বৈঠকে গুতেরেসের কাছে তুলে ধরেন পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত। এ বিষয়ে জাতিসংঘ মহাসচিবের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি পাকিস্তানকে অস্থিতিশীল এবং দেশটির সঙ্গে চীনের অর্থনেতিক সম্পর্ককে ক্ষতিগ্রস্ত করার জন্য ভারত সন্ত্রাসী হামলায় মদদ দিচ্ছে বলে অভিযোগ করে ইসলামাবাদ। নয়াদিল্লি যে পাকিস্তানের অভ্যন্তরে হামলা চালাতে সন্ত্রাসীদের সহায়তা করছে তার বিস্তর প্রমাণ তাদের কাছে রয়েছে বলে তখনই জানান পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি। আর এখন জাতিসংঘ মহাসচিবের কাছে এই অভিযোগ তুলে ধরার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক মঞ্চে ভারতকে কড়া বার্তা দিল পাকিস্তান।