কুমিল্লায় পানিতে ডুবে ভাই-বোনসহ নিহত ৩ শিশু

শাহজাদা এমরান শাহজাদা এমরান

কুমিল্লা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: 10:25 PM, July 23, 2019 | আপডেট: 10:25:PM, July 23, 2019
প্রতীকী ছবি

কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলা ও নাঙ্গলকোটে পানিতে ডুবে দুই ভাই বোনসহ ৩ শিশু মারা গেছে। মঙ্গলবার দুপুরে পৃথক এই দুটি দূর্ঘটনা ঘটে। জানা যায়, কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলার ধনুয়াখলায় পানিতে ডুবে ভাই-বোনের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার ফাহমিদা আক্তার ও হাবিবুর রহমান নামের দেড় বছরের দুই শিশু একসাথে খেলতে গিয়ে বাড়ির পাশের পুকুরের পানিতে ডুবে তাদের এই মৃত্যু হয়। দুই শিশু সম্পর্কে চাচাতো ভাই-বোন। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। ঘটনাটি ঘটে এ দিন দুপুরে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙলবার ধনুয়াখলা সেলিম কবিরাজ বাড়ির আবাদ মিয়ার ১৭ মাস বয়সী শিশু কন্যা ফাহমিদা আক্তার ও একই বাড়ির প্রবাসী ফজলু মিয়া সমবয়সী শিশু পুত্র হাবিবুর রহমানকে একসাথে বাড়ির আঙ্গিনায় খেলতে দিয়ে মায়েরা পরিবারের কাজ করছিল।

আধা ঘন্টা পরেই তাদের খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। গ্রামের মসজিদের মাইকে নিখোঁজ হওয়ার ঘোষণা দিলে ছেলেধরা সন্দেহে দ্রুত চারিদিকে লোকজন খুঁজতে নামে। পরে বাড়ির পাশের পুকুরে তাদের মরদেহ পাওয়া যায়। এই ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

স্থানীয় ইউপি মেম্বার মো.তাজুল ইসলাম জানান, পানিতে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। মঙ্গলবার বিকালে পারিবারিক কবরস্থানে তাদের দাফন করা হয়েছে।

অপর দিকে কুমিল্লার নাঙ্গলকোট পৌর সদরে পানিতে পড়ে শিমলা আক্তার নামের ১৮ মাস বয়সী এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সে ওই গ্রামের সৌদি আরব প্রবাসী সোলাইমান হোসেনের মেয়ে।

মঙ্গলবার পৌর সদরের গোত্রশাল গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। নিহতের ফুফু আরজু আক্তার জানান,দুপুরের দিকে শিশুটির মা স্বর্ণা বেগম রান্নাঘরের কাজ নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন।

এদিকে শিশুটিকে পাওয়া যাচ্ছিলো না। পরে দিঘিতে লাশ ভাসতে দেখা যায়। তার দাদা আব্দুল লতিফ শিশুটিকে উদ্ধার করে উপজেলা সরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।