কুমিল্লায় পিকাপ ভ্যান চালক রাতে নিখোঁজ সকালে লাশ!

শাহজাদা এমরান শাহজাদা এমরান

কুমিল্লা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৫:২৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ৪, ২০২০ | আপডেট: ৫:২৪:অপরাহ্ণ, জুলাই ৪, ২০২০

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে দুর্বৃত্তরা পিকআপ ভ্যান চালককে হত্যার পর ব্রিজের পাশ ফেলে গেছেন। ভ্যান চালক ইউসুফ মহসিন (৪০) নাঙ্গলকোট উপজেলার রায়কোট দক্ষিণ ইউনিয়নের শ্রীরামপুর গ্রামের মৃত মন্তু মিয়ার ছেলে।

শনিবার ভোরে শ্রীরামপুর মনতলী ব্রিজের পাশ থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। শুক্রবার রাত ৯টার পর থেকে মহসিনের সন্ধান পায়নি তার পরিবার। মোবাইল ফোনও বন্ধ ছিল।

নিহত মহসিনের বড় ভাই মো. ইয়াছিন জানান, তার ভাই মহসিন পিকআপ ভ্যানের চালক ছিলেন। শুক্রবার রাত হানিফ নামে আরেক পিকআপ ভ্যানের চালকের সাথে নাঙ্গলকোট শান্তিরবাজায় যায় মহসিন। তারপর থেকে মহসিনের মোবাইল ফোন বন্ধ হয়ে যায়। পরে হানিফের কাছে তার সন্ধান জানতে চাইলে সে জানায় মহসিন তার সাথে শান্তিরবাজার যাওয়ার পর কোথায় গেছেন জানেন না। খোঁজ না পেয়ে হানিফ বাড়িতে চলে আসে। পরবর্তীতে শনিবার ভোরে এলাকাবাসি বলছে ব্রিজের পাশে একটি লাশ পড়ে আছে। খবর পেয়ে মনতলী ব্রিজের পাশে গিয়ে দেখেন তার ভাই মহসিনের লাশ।

বড় ভাই ইয়াছিনের আরও অভিযোগ, গত কিছু দিন পূর্বে পাশ^বর্তী বাঙ্গড্ডা ইউনিয়নের ছাত্রলীগ নেতা সাইফুলের সাথে পিকআপ ভ্যানের ভাড়া নিয়ে বাকবিতন্ডা হয়। এনিয়ে ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল মহসিনকে হত্যার হুমকি দেয় একাধিকবার। পরবর্তীতে সালিশি বৈঠকে তার সমাধান হলেও হত্যার হুমকি অব্যাহত থাকে।

এদিকে হানিফের মাধ্যমে ফোন করে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে সাইফুল ও তার লোকজন মহসিনকে হত্যার পর ব্রিজের পাশে লাশ ফেলে গেছে বলে বড় ভাই ইয়াছিন এবং পরিবারের ধারণা। তবে এখনও ঘাতকদের চিহ্নিত করতে পারেননি তারা।

নাঙ্গলকোট থানার এস আই শফিক জানান, মনতলী ব্রিজের পাশ থেকে মহসিন নামে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারের পর লাশ থানায় নিয়ে যাচ্ছি। এরপর মরহেদ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল।লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হবে।