কুমিল্লায় সৌদি প্রবাসীর বোবা স্ত্রীকে শ্বশুরের ধর্ষন, সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা

শাহজাদা এমরান শাহজাদা এমরান

কুমিল্লা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৪:১১ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৯ | আপডেট: ৪:১১:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৯

কুমিল্লা জেলার লাকসাম উপজেলার বাকই ইউনিয়নের কোয়ার গ্রামে শশ্বর কর্তৃক বোবা পূত্রবধুকে ধর্ষন করে সাত মাসের অন্ত:সত্তা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগ পেয়ে লাকসাম থানা পুলিশ বখাটে শ্বশুরকে গ্রেফতার করেছে। ধর্ষিতা গৃহবধুর মা বাদী হয়ে লাকসাম থানায় মামলা করেছে। লাকসাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনোজ কুমার দে এর সত্যতা নিশ্চিত করে সোমবার সকালে বলেন, ধর্ষিতা মেয়েটি প্রবাসীর স্ত্রী। তার স্বামী ১৯ মাস ধরে বিদেশে। ধর্ষনের বিষয়ে সে তার শ্বশুরের দিকে ইঙ্গিত করেছেন।

লাকসাম থানা পুলিশ জানায়,ধর্ষনের অভিযোগে রোববার উপজেলার বাকই ইউনিয়নের কোয়ার গ্রাম থেকে সফি উল্লাহকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত সফি উল্লাহ ওই গ্রামের মৃত ফজর আলীর ছেলে। বোবা পুত্রবধূর স্বামী সাদ্দাম হোসেন ১৯ মাস ধরে সৌদিআরবে রয়েছে। এই সুযোগে শ্বশুর সফি উল্লাহ পুত্রবধূকে বিভিন্ন সময় ধর্ষণ করে আসছে। এতে পুত্রবধূ সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে।

এ ঘটনায় রোববার নির্যাতিত মেয়েটির মা থানায় অভিযোগ দেন। অভিযোগ পেয়ে পরে পুলিশ সফি উল্লাহকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। ধর্ষণের ঘটনায় শ্বশুর জড়িত বলে ইঙ্গিত দিয়েছে পুত্রবধূ।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে লাকসাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনোজ কুমার দে বলেন, বোবা পুত্রবধূ বর্তমানে সাত মাসের অন্:সত্ত্বা। অথচ তার স্বামী ১৯ মাস ধরে সৌদি আরবে রয়েছে। ধর্ষণের ঘটনায় শ্বশুর জড়িত বলে ইঙ্গিত দিয়েছে নির্যাতিত পুত্রবধূ। এ ঘটনায় শ্বশুর সফি উল্লাহকে গ্রেফতার করা হয়। তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে বলেও জানান ওসি।আজ সোমবার তাকে আদালতে হাজির করা হবে বলে তিনি জানান।