কুমিল্লা নগরীর রাস্তায় বেড়েছে মানুষের ভিড়

শাহজাদা এমরান শাহজাদা এমরান

কুমিল্লা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৯:২৬ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৩, ২০২০ | আপডেট: ৯:২৬:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৩, ২০২০

কুমিল্লা নগরীর রাজগঞ্জে কেউ কিনছেন কলা কেউ তরমুজ। রিক্সাওয়ালারা ডাকছেন এই যাইবেন চকবাজার নুরপুর। পাল্লা দিয়ে যাত্রীদের ডাকছেন সিএনজি চালিত অটোরিক্সা চালকরাও। প্রশাসন থেকে নগরীতে সামাজিক দূরত্ব কমানোর উদ্দেশ্য জনসমাগম বন্ধের আহবান জাননোর পরেও বেড়েছে সাধারণ মানুষের পদচারনা।

সকাল পৌনে ১১ টায় নগরীর প্রাণকেন্দ্র কান্দিরপাড়ে গিয়ে দেখা যায়, যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। পুলিশ সদস্যরা টহল দিচ্ছে। মাঝে মাঝে দু’চারজন ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সা ফিরিয়ে দিচ্ছেন।

এদিকে নগরীর টমছমব্রিজ ও কান্দিরপাড়েও অন্যদিনের থেকে বেশি মানুষ দেখা গেছে। নগরীর বিসিক শিল্পনগরীর অধিকাংশ কারখানা চালু রয়েছে। মহাসড়কে বাস ছাড়া অন্য পরিবহনের সংখ্যা বেড়েছে। মুরাদনহর উপজেলার কোম্পানীগঞ্জ বাজাওে ক্রেতা সমাগম বেড়েছে। লাকসামের দৌলতগঞ্জ বাজারেও একই অবস্থা।
নাম না প্রকাশ করার শর্তে কান্দিরপাড়ে দায়িত্বরত এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, আমরা কঠোর হলেও দোষ-আবার শিথিলতা দেখালেও দোষ। পাবলিক যত দিন সচেতন না হবে-পুলিশ হাজার অনুরোধ কিংবা লাঠিপেটা করলেও সচেতন হবে না।

কুমিল্লার সিভিল সার্জন ডা. নিয়াতুজ্জামান বলেন, আমরা সাধারণ মানুষজনকে সচেতন করার জন্য কত পদক্ষেপ নিয়েছি। বাস্তবায়ন করে চলছি। মানুষের অসচেতনতা দেখলে খারাপ লাগে। তবুও আমি বলবো সচেতন হোন। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সহযোগিতা করুন।

কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট জামেরী হাসান জানান, নিয়মিত মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করছি। জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা বিশেষ করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার-এসিল্যান্ডরা রাত-দিন কাজ করছে। জনসাধারণকে সচেতন হতে হবে। আমরা আমাদের কাজ করে যাচ্ছি।