কুলাউড়ায় পান চুরির দায়ে ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার

প্রকাশিত: ২:৫৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৮ | আপডেট: ২:৫৩:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৬, ২০১৮

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় পান চুরির দায়ে ভাটেরা ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা তালুকদার জসীম সিদ্দিকীকে বহিষ্কার ও এঘটনায় সম্পৃক্ত থাকার দায়ে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলামকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে কুলাউড়া উপজেলা ছাত্রলীগ।

বুধবার রাত ১১টায় কুলাউড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. নিয়াজুল তায়েফ ও সাধারণ সম্পাদক আবু সায়হাম রুমেলের স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এতথ্য জানানো হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার কুলাউড়া থেকে সিলেটগামী একটি পানবাহী পিকআপ ভ্যান ভাটেরা ইউনিয়নের একটি নবনির্মিত কালভাটে পৌঁছালে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম ও সাংগঠনিক সম্পাদক তালুকদার জসিম সিদ্দিকী গাড়ীর পিছনে উঠে পড়ে। তারা পানের কয়েকটি খাঁচা মাটিতে ফেলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকালে গাড়ির হেলপার তাদের ধাওয়া করে। এসময় তালুকদার জসীম সিদ্দিকীকে আটক করতে পারলেও বাকীরা পালিয়ে যায়। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ জসীমকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

এঘটনায় জসীমকে আসামি করে পান ব্যবসায়ী আব্দুল খালিক বাদী হয়ে কুলাউড়া থানায় একটি মামলা (নং-১৩/০৫-০৯-২০১৮ইং) দায়ের করেন।

এ বিষয়ে কুলাউড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সায়হাম রুমেল বলেন, ‘ছাত্রলীগের শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয় এমন কাজ কেউ করলে বরদাস্ত করা সম্ভব নয়। কারো ব্যক্তিগত অপকর্মের দায় সংগঠন নিবে না।’

বহিষ্কারের বিষয়ে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. নিয়াজুল তায়েফ বলেন, ‘ছাত্রলীগের নাম ব্যবহার করে যারা অপকর্মে লিপ্ত, তারা কখনো দায় এড়াতে পারবে না। ছাত্রলীগ সবসময় অন্যায় কর্মকাণ্ডের বিপক্ষে সোচ্চার। আমরা উপজেলা ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ সকলে মিলে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।’