কেশবপুরে করোনা প্রতিরোধে এলাকাবাসীর উদ্যোগে লকডাউন

প্রকাশিত: ৯:৩৮ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৮, ২০২০ | আপডেট: ৯:৩৮:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৮, ২০২০

জাহিদ আবেদীন বাবু, কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি: যশোরের কেশবপুরে করোন ভাইরাস প্রতিরোধে এলাকাবাসি নিজস্ব উদ্যোগ পৌরসভার বিভিন্ন এলাকা লকডাউন ঘোষণা করে বহিরাগতদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করেছেন। বুধবার লকডাউন ঘোষণা করার পর থেকে এলাকার যুবকরা পালাক্রমে দায়িত্ব পালন করছেন।

পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের ভবানীপুর ও কেশবপুর সরদার পাড়া, ২ নম্বর ওয়ার্ডের ভোগতী নরেন্দ্রপুর ও ৭ নম্বর ওয়ার্ডের মধ্যকুল সরদার পাড়াবাসী একত্রিত হয়ে তাদের এলাকা লকডাউন করেন।

সরেজমিন মধ্যকুল সরদার পাড়া ও ভবানীপুর এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, ওই এলাকায় বাইরের কাউকে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। এলাকার কেউ জরুরি কাজে বাইরে এলে ঘরে ফেরার সময় জীবানুনাশক সাবান ও স্প্রে দিয়ে হাত পা ধুয়ে ভিতরে প্রবেশ করানো হচ্ছে। আর একাজ পালাক্রমে করে যাচ্ছেন এলাকার যুবকরা। ১ নম্বর ওয়ার্ডের ভবানীপুর স্লুইস গেটের উপর, রেজাউল বাশার খানের বাড়ির সামনে, মোশাররফ হোসেনের বাড়ির পাশে ও কেশবপুর খ্রীস্টান পল্লীর পাশে ভেতরে প্রবেশ পথে এলাকাবাসী নিজ উদ্যোগে বাঁশ পুতে বহিরাগতদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করেছেন।

ভবানীপুর মোড়ে দায়িত্বরত আমির আলী বলেন, বহিরাগত কোনো মানুষকে ভেতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। এলাকার মানুষকে হাত পা জীবানুমুক্ত করে ভেতরে ঢোকানো হচ্ছে।

এলাকার কেশবপুর সীমানার মোড়ে দায়িত্ব পালনকারী মোশাররফ হোসেন বলেন, আমাদের এলাকা করোনভাইরাস মুক্ত রাখার জন্য সবাই মিলে এ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। বুধবার থেকে এ কাজ শুরু করায় পৌরসভার অন্যান্য এলাকার মানুষও উদ্ধুদ্ধ হচ্ছেন।

মধ্যকুল খানপাড়ার বাবলু খান ও সরদার পাড়ার ভ্যানচালক আবদুল হালিম বলেন, তাদের এলাকায় এ লকডাউন ঘোষণা করায় এলাকাবাসীর ভেতর আরো সচেতনতা বৃদ্ধি পেয়েছে।

ভোগতী নরেন্দ্রপুরের বাসিন্দা শফিউদ্দিন বলেন, তাদের এলাকা সকলের উদ্যোগে এ কাজ শুরু করা হয়েছে। এতে এলাকার মানুষের ভেতর সচেতনতা বৃদ্ধি পেয়েছে। এভাবে পৌর এলাকার সবকয়টি ওয়ার্ডেই এ উদ্যোগ নেয়া হলে এলাকার মানুষ ভালো থাকবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।