ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াই মাশরাফির রংপুর রাইডার্স

টিবিটি টিবিটি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১:২৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২, ২০১৯ | আপডেট: ১:২৩:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২, ২০১৯
সংগৃহীত

কিপিং গ্লাভস হাতে উইকেট সামলাচ্ছেন ক্রিস গেইল, ব্যাটসম্যান বোল্ড হওয়ার পরে দিচ্ছেন বাহারি ধরনের নাচ। ব্যাট হাতে নেমে ইচ্ছে করেই বোল্ড হয়ে যাচ্ছেন নাজমুল ইসলাম অপু, ওয়াইড বলেও পেছন দিয়ে ব্যাট চালাচ্ছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা!

গোলমেলে ঠেকছে? আসলে গোলমেলে নয়, নিছকই মজার ছলে শুক্রবার গুলশান ইয়ুথ ক্লাব মাঠে খেলতে নেমেছিলেন রংপুর রাইডার্সের ক্রিকেটাররা। নিজেদের মধ্যেই কয়েক দলে ভাগ হয়ে এমন বিনোদনমূলক ক্রিকেট খেলেছেন মাশরাফি, গেইল, ডি ভিলিয়ার্সরা।

তবে খেলাটি মজার ছলে হলেও, পেছনে উদ্দেশ্যটা ছিলো মহৎ, প্রশংসনীয়। মূলত ক্যান্সার আক্রান্ত রোগীদের পাশে দাঁড়াতে এবং ক্যান্সারের ব্যাপারে জনসচেতনতা বাড়ানোর লক্ষ্যে ‘ক্রিকেট ফর ক্যান্সার’ ব্যানারে এই প্রদর্শনীমূলক ক্রিকেটের আয়োজন করেছে রংপুর রাইডার্স ফ্র্যাঞ্চাইজি। যেখানে সাগ্রহে অংশ নিয়েছে রংপুরের দেশি-বিদেশি ক্রিকেটার ও কোচ-ম্যানেজম্যান্টের সদস্যরা।

চোখের সামনে তারকা ক্রিকেটারদের দেখতে পেয়েছেন ক্যান্সারের সঙ্গে লড়তে থাকা বাস্তব জীবনের যোদ্ধারা। যারা ম্যাচের পুরোটা সময়ে কখনো হেসেছেন, কখনো অবাক হয়েছেন আবার আবেগাপ্লুত হয়েছেন মাশরাফি, গেইলদের ছোঁয়া পেয়ে। সময়টা উপভোগ করেছেন গেইল, ডি ভিলিয়ার্স, টম মুডিরাও।

এমন ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগের ব্যাপারে রংপুর রাইডার্সের প্রধান নির্বাহী ইশতিয়াক সাদিক বলেন, ‘এখন থেকে সবসময়ই ক্যান্সার রোগীদের সঙ্গে থাকবে রংপুর রাইডার্স। ক্যান্সারের ব্যাপারে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে আমরা আরো কিছু পরিকল্পনা ভেবে রেখেছি। এছাড়া সামনে এমন অন্য কোনো মহতী উদ্যোগ যদি আমাদের সামনে আসে, আমরা এর সঙ্গেও যুক্ত হবো।’

ক্যান্সার আক্রান্ত মানুষদের পাশে দাঁড়ানো সকলের দায়িত্ব বলে মন্তব্য করেন রংপুর কোচ টম মুডি। দলের অধিনায়ক মাশরাফি জানান ক্যান্সারে আক্রান্ত মানুষদের পাশে দাঁড়ানোটা রংপুর রাইডার্স ফ্র্যাঞ্চাইজির অনেক ভালো একটি উদ্যোগ।

এসময় মাশরাফি আরও জানান যে আসন্ন ওয়ানডে বিশ্বকাপের আগে ভারত ও পাকিস্তানের বিপক্ষে হতে যাওয়া প্রস্তুতি ম্যাচ দুইটি বিশ্বকাপের কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে সাহায্য করবে তাদের। তবে এশিয়ার বাইরের কোনো দলের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ না পাওয়ার আক্ষেপও শোনা যায় মাশরাফির কণ্ঠে।