ক্যান্সার চিকিৎসায় বিশাল সুখবর

টিবিটি টিবিটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ৭:১৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৫, ২০২০ | আপডেট: ৭:১৪:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৫, ২০২০
ফাইল ছবি

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আশঙ্কা, ২০৩০ নাগাদ ভারতবর্ষে প্রতিবছর ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে এক কোটি মানুষের মৃত্যু হবে। বর্তমান বিশ্বে প্রতি বছর এক কোটি ৮০ লাখ মানুষ ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছেন এবং তাদের মধ্যে ৯৬ লাখ মানুষের মৃত্যু হচ্ছে।

তবে এই মরণব্যধির বিরুদ্ধে এক যুগান্তকারী আবিষ্কার করেছেন ইসরাইলের একদল বৈজ্ঞানিক। তারা ক্যান্সার চিকিৎসায় নতুন এক ধরনের কেমোথেরাপি আবিষ্কার করেছেন যেটি ব্যবহার করে কেবল ক্যান্সার কোষগুলোকে টার্গেট করে ধ্বংস করা যায়। এতে পার্শ্ববর্তী কোষগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয় না।

ইসরাইলি বৈজ্ঞানিকদের আবিষ্কার করা এই পদ্ধটিটি এটি একটি ডিএনএভিত্তিক প্রযুক্তি যা ক্যান্সার আক্রান্তদের জীবনকালকে উল্লেখযোগ্যহারে বৃদ্ধি করবে বলে আবিষ্কারকদের বিশ্বাস। ইঁদুরের উপর এই চিকিৎসা প্রয়োগে জীবনকাল দ্বিগুন বৃদ্ধি পেয়েছে।

আগামী দুই থেকে তিন বছরের মধ্যে এমন চিকিৎসা পদ্ধতি মূলধারায় প্রবেশ করবে আশা প্রকাশ করেছেন উদ্ভাবকরা। প্রযুক্তিটির বিষয়ে তারা খুবই উৎফুল্ল। তারা মনে করেন, এই পদ্ধতিতে একদিন মানুষ যে কোনও ক্যান্সার থেকে স্বল্প সময়ের মধ্যে পুরোপুরি আরোগ্য লাভ করবেন।

বর্তমানে প্রযুক্তিটির কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি। তবে একটি সমস্যা হচ্ছে ক্যান্সার সেলগুলো মরে যাওয়ার পর আবার ফিরে আসে। সামনের দিনগুলোতে আরও উন্নয়নের মাধ্যমে এই সমস্যারও সমাধান হবে এবং পদ্ধটিটি নির্ভরযোগ্য হিসেবে মানবদেহে প্রয়োগের জন্য প্রস্তুত হবে।

প্রফেসর ড্যান পিয়ার মনে করেন এই গবেষণায় এটুকু প্রমাণিত হয়েছে যে ডিএনএ পদ্ধিতির মাধ্যমে মানুষের শরীরের ক্যান্সার সেলগুলোকে টার্গেট করে মেরে ফেলা যায়। এই ফলাফল ক্যান্সার গবেষণাকে অনেক সাফল্য এনে দেবে সামনের দিনগুলোতে।